রাত ০৯:০০ ; মঙ্গলবার ;  ১৬ জুলাই, ২০১৯  

ডিনস অ্যাওয়ার্ডের মৃত্তিকা বিজ্ঞানীরা

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন  রিপোর্ট ।।

যেকোনও সম্মাননা আনন্দের। আর শিক্ষাজীবনের অর্জনগুলোর প্রাতিষ্ঠানিক ভাবে সম্মান পাওয়া যেন আরও একটু বেশি সম্মানেরর। সম্প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদের ডিনস অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানটি হয়ে উঠেছিল মেধাবী শিক্ষার্থীদের মিলনমেলা। যেখানে কৃতিত্বর্পূ্ণ অবদানের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাফল্যতায়  যোগ হলো আরো ৫৪শিক্ষার্থীর নাম্।

এদের দেওয়া হলো বিশ্ববিদ্যালয়টির সবচেয়ে সম্মান জনক ডিনস অ্যাওয়ার্ড যেখানে স্নাতক সম্মানে কৃতিত্বপূর্ন ফলাফলের জন্য সম্মান জানান হয়  জীব বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ৮টি বিভাগের শিক্ষার্থীদের। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের  জীববিজ্ঞান অনুষদের ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক সম্মান পরীক্ষায় বিশেষ কৃতিত্বের অধিকারী শিক্ষার্থীদের ডিন সম্মাননা দেওয়া হয়। চার বছরের স্নাতক সম্মান ফলাফল সিজিপিএ এর ভিত্তিতে এবং ক্লাস উপস্থিতির ভিত্তিতে এই সম্মাননা দেওয়া হলো।

ঢাবির নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক কৃতী শিক্ষার্থীদের হাতে এই অ্যাওয়ার্ড তুলে দেন। জীব বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক মো. ইমদাদুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সময় কৃত্বি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক নাসরীন আহমাদ, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. কামাল উদ্দীন, অধ্যাপক মনিরুজ্জামান খন্দকার, সংগীতা আহমেদ প্রমুখ ।

 অ্যাওয়ার্ড পাওয়া আরিফুর রহমান মিনার জানান তার অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে বলেন, “যেকোন সম্মাননা অনেক আনন্দের। অনুপ্রেরণার কাজ করে । আমার ও আমাদের সবাই যারা এই সম্মাননা পেয়েছি তাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বছর থেকেই এই সম্মাননা অর্জন করার উদ্দেশ্য ছিল।”

এ সময় সম্মাননা পাওয়া অপর শিক্ষার্থী মিথিলা চক্রবর্তী বলেন, “ মৃত্তিকা , পানি ও পরিবেশ বিভাগের ছাত্রছাত্রী হিসেবে আমরা সবসময়ই প্রকৃতির খুব কাছের বিষয় নিয়ে পড়াশোনা করেছি। প্রকৃতি ও পরিবেশ তদোপরি মানুষের কল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত করাই আমাদের উদ্দেশ্য।”

তার সঙ্গে গলা মেলালেন, সম্মাননা পাওয়া আরও পাঁচ শিক্ষার্থী জাহাঙ্গীর কবির সাগর, আরিফুর রহমান মিনার, মেশকাত জাহান, প্রভা তাবাসসুম এবং রিফাত আরা।

 মেশকাত বললেন, আমরা ঋণী মৃত্তিকা, পানি ও পরিবেশ বিভাগের শিক্ষকদের কাছে যারা অনেক সাহায্য করেছেন। যেকোন প্রয়োজনে তাদেরকে আমরা পাশে পেয়েছি। আর আমাদের বন্ধুবান্ধবের অনুপ্রেরণা ছাড়া কোন কিছুই সম্ভব ছিল না। ভবিষ্যতে যেন দেশ ও দশের সেবায় নিজেকে নিবেদন করে এই সাফল্যর ধারা অব্যাহত রাখতে পারি এই আশা করি।”

ডিন অ্যাওয়ার্ড বিজয়ীরা দায়িত্ববোধকে সমুন্নত রেখে সামনে এগিয়ে যাওয়ার ইচ্ছা ব্যক্ত করেন।
উল্লেখ্য, ‘ডিনস অ্যাওয়ার্ড’ হচ্ছে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট অনুষদের ডিন কর্তৃক প্রদত্ত সর্বোচ্চ মেধাভিত্তিক পুরস্কার। সাধারণত নিজ নিজ বিভাগে যারা খুব ভালো ফল করেন, তারাই পুরস্কারটি পান।

 

/এআই/এফএএন/  

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।