রাত ০১:৪৫ ; শুক্রবার ;  ২১ জুন, ২০১৯  

এখনও তরুণ বব ডিলান

প্রকাশিত:

উম্মে রায়হানা ॥

হাউ মেনি রোডস মাস্ট আ ম্যান ওয়াক ডাউন... যুদ্ধের বিরোধিতা অথবা শান্তি ও স্বাধীনতার ডাক হিসেবে এই গান পৃথিবীতে কত স্থানে কতবার গাওয়া হয়েছে তার হিসেব নেই। বহুল জনপ্রিয় এই গানের কবি, অ্যামেরিকান ফোক গায়ক বব ডিলানের আজ জন্মদিন। এবার তার বয়স ৭৪ হলেও তারুণ্যের কোঠা কোনওভাবেই ছাড়াতে পারেননি তিনি।

বিশ্বজুড়ে মানবাধিকারের পক্ষে কাজ করে ও যুদ্ধবিরোধী ডাক দিয়ে খ্যাতি আর জনপ্রিয়তার তুঙ্গে পৌঁছে যাওয়া ডিলান ১৯৪১ সালের ২৪ মে, মিনেসোটায় জন্মগ্রহণ করেন। ডিলানের সত্যিকারের নামটা একটু ভারিক্কিই, তার বাবামায়ের দেওয়া নাম রবার্ট অ্যালেন জিমারম্যান। ইউনিভার্সিটি অব মিনেসোটায় শিক্ষার্থী থাকা অবস্থায়ই গঠন করেন একাধিক ব্যান্ড, তখন থেকেই আত্মপ্রকাশ করেন বব ডিলান নামে।

নাম বদলানো নিয়ে তার একটা তত্ত্ব আছে। তিনি বলেন,  আমরা যে বাবামায়ের কাছে যে নাম নিয়ে জন্মাই, তাতে আমাদের কোন নিয়ন্ত্রণ থাকে না। কিন্তু ব্যক্তির অধিকার আছে নিজে যে নামে পরিচিত হতে চায়, সেই নামেই পরিচিত হওয়ার। 

ইউনিভার্সিটি থেকে শেষ পর্যন্ত প্রাতিষ্ঠানিক লেখাপড়া শেষ করেননি বব, ১৯৬০ সালেই ছেড়ে দেন বিশ্ববিদ্যালয়। আত্মনিবেদন করেন সঙ্গীতের সাধনায়ই। সঙ্গীত জগতে ব্যান্ড সংস্কৃতির বাইরে একক শিল্পী হিসেবে প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রেও পথিকৃৎ বলা যায় তাকে।

ষাটের দশকেই একসঙ্গে কাজ করতে করতে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন আরেক উজ্জ্বল সঙ্গীত প্রতিভা জোয়ান বয়াজের সঙ্গে। তাদের এই প্রেম মাত্র দু'বছর টিকে থাকলেও রয়ে গেছে একসঙ্গে লেখা, গাওয়া আর কম্পোজ করা অসংখ্য গান।

দুটো বিবাহিত জীবনে পাঁচ সন্তানের জনক ডিলান। এ ছাড়াও প্রথম স্ত্রী সারা লন্ডসের কন্যা সন্তানকে দত্তক নেন ডিলান।

দীর্ঘ সঙ্গীত ক্যারিয়ারে গ্র্যামি, গোল্ডেন গ্লোব ও অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ড লাভ করেন বব। এ ছাড়াও ২০০৮ সালে পুলিৎজার জুরি সঙ্গীত ও কাব্য প্রতিভা দিয়ে আমেরিকান সংস্কৃতিতে অবিস্মরণীয় ভূমিকা রাখার জন্য এক বিশেষ পুরষ্কারে ভূষিত করে বব ডিলানকে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ২০১২ সালে তার পুরষ্কারের ঝুলিতে যোগ করেন প্রেসিডেনশিয়াল মেডেল অব ফ্রিডম।

ফোক এবং রক মিউজিকে ডিলানের প্রভাব এতই বেশি, সত্তরের দশকের পর থেকে গিটার হাতে যে কোন তরুণ আজও যখন তখন গেয়ে ওঠে এক মৃত্যুপথযাত্রীকে নিয়ে ডিলানের লেখা গান-  নক নক নকিং অন দ্য হেভেনস ডোর...    

এই তরুণের জন্মদিনে শুভেচ্ছা।

/এফএএন/

 

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।