সকাল ১০:৩৭ ; রবিবার ;  ১৬ জুন, ২০১৯  

বাংলাদেশি তামিমের কাতার জয়

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ে এ বছর একমাত্র বাংলাদেশি শিক্ষার্থী হিসেবে স্বর্ণপদক পুরস্কার অর্জন করেছেন রাজধানী ঢাকার খিলগাঁওয়ের দক্ষিণ বনশ্রীর ছেলে তামিম রায়হান। বুধবার দুপুরে অনুষ্ঠিত কাতার জাতীয় কনভেনশন সেন্টারে ৩৮তম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে দেশটির দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ব্যক্তিত্ব ডেপুটি আমির শেখ আবদুল্লাহ বিন হামাদ আলথানি তামিমের হাতে স্বর্ণপতক তুলে দেন।

কাতার বিশ্ববিদ্যালয় দেশটির একমাত্র সরকারি ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। চলতি বছরে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সর্বোচ্চ নম্বর পাওয়া ৩৩ জন মেধাবী ছাত্রের হাতে স্বর্ণপদক তুলে দেওয়া হয়েছে। অনুষ্ঠানে কাতারের প্রধানমন্ত্রী শেখ আবদুল্লাহ বিন নাছের বিন খলিফা আলথানি এবং মন্ত্রি পরিষদের অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

সমাবর্তন অনুষ্ঠানে কাতারের নায়েবে আমির শেখ আব্দুল্লাহ বিন হামাদের কাছ থেকে স্বর্ণপদক গ্রহণ করছেন তামিম রায়হান

সমাবর্তন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক শেয়খা আবদুল্লাহ আল মিসনাদ। সমাবর্তনে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব বিভাগের ডিন ও শিক্ষকরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

এবারের সমাবর্তনে বিশ্ববিদ্যালয়টির ছয়টি কলেজ থেকে ৩০০ জন অনার্স, ৭৯ জন মাস্টার্স এবং একজন ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেছেন। এই ৩০০ ছাত্রের মধ্যে বাংলাদেশি ছাত্র ছিলেন মাত্র ৭ জন। তামীম রায়হান ৭ জনের একজন।

কাতারের ইংরেজি দৈনিক পেনিনুসলার প্রথম পৃষ্ঠায় তামিমের ছবি

তামীমের কৃতিত্ব নিয়ে কাতারের ইংরেজি দৈনিক পেনিনুসলা ছবিসহ পত্রিকার প্রধান সংবাদ হিসেবে প্রকাশ ছেপেছে।

২০১০ সালে স্কলারশিপ নিয়ে কাতার যান তামিম রায়হান। এরপর ‘গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা' বিষয়ে তিনি অনার্স ও মাস্টার্স শেষ করেন। এর আগে ঢাকার জামিয়া কোরআনিয়া আরাবিয়া লালবাগ মাদ্রাসা থেকে দাওরায়ে হাদিস (মাস্টার্স) সম্পন্ন করেন। কওমি মাদ্রাসার কেন্দ্রীয় বেফাকের পরীক্ষায়ও তামিম সারাদেশে শীর্ষ দশ মেধাবীদের তালিকায় ছিলেন। পাশাপাশি ঢাকার একটি সরকারি মাদ্রাসা থেকে আলিম ডিগ্রি পাস করেন তামিম।

কোরআন শরীফের হাফেজ তামিম রায়হানের গ্রামের বাড়ি চাঁদপুর। পাঁচ ভাইবোনের মধ্যে তামিম পরিবারের দ্বিতীয় ছেলে।

পড়াশোনার সঙ্গে ইতোমধ্যে গ্রন্থ রচনায় হাত পাকিয়েছেন তামিম রায়হান। তার প্রকাশিত গ্রন্থগুলোর মধ্যে রয়েছে- ইতিহাসের হাসি-কান্না, শাহজাদা। সম্পাদনা করছেন শিশুতোষ পত্রিকা নবধ্বনি। 

তামিম বর্তমানে দৈনিক প্রথম আলোর কাতার প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছেন। এর আগে বেসরকারি টেলিভিশন আরটিভি, অনলাইন পোর্টাল বাংলা নিউজের কাতার প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেছেন।

প্রিয় শিক্ষক কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা বিভাগের মার্কিন নাগরিক ড. নিশান রাফির সঙ্গে তামিম

স্বর্ণপদক সম্পর্কে তামিম রায়হান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘এ আনন্দের কৃতিত্ব আমার মা-বাবা পরিবার এবং বন্ধুদের। যাদের উৎসাহ ও অনুপ্রেরণায় আমি আজ এখানে। পরম দয়াময়ের এমন করুণাধারায় সিক্ত হোক জীবনের প্রতিটি প্রহর।’

নিজের ব্যাক্তিগত পছন্দ সম্পর্কে তামিম রায়হান বলেন, ’সব সময় বাংলাদেশকে ভালবাসি। দেশেই ফিরতে মন চায়। কিন্তু পড়াশোনার টানে সম্ভব হয়নি।’

তামিমের পছন্দের মধ্যে রয়েছে ঘুরাঘুরি ও বই পড়া। এখন তিনি আখতারুজ্জামান ইলিয়াসের গল্প পড়ছেন বলে জানান। তবে জীবনানন্দ দাশের কবিতা বেশি ভাল লাগে বলেও জানালেন তিনি।

/এসটিএস/এএ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।