দুপুর ০১:৫৭ ; মঙ্গলবার ;  ১২ নভেম্বর, ২০১৯  

স্টেশন মাস্টার স্বাক্ষরিত কাগজই ট্রেনের টিকিট !

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

নীলফামারী প্রতিনিধি

চিলাহাটি এবং ডোমার রেল স্টেশন থেকে ঢাকাগামী আন্তঃনগর ট্রেন নীলসাগর এক্সপ্রেসের নেই কোনও ছাপানো টিকিট। সাদা কাগজে স্টেশন মাস্টারের হাতে লেখা টিকিটে যাত্রীদের ভ্রমণ করতে হচ্ছে।

চলতি বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকা থেকে চিলাহাটি এবং চিলাহাটি থেকে ঢাকা ট্রেনটি সরাসরি চলাচল শুরু করে। গত ৩ মাসেও কর্তৃপক্ষ কোনও টিকেট সরবরাহ করেনি। যাত্রীরা নীলফামারী, ডোমার এবং চিলাহাটি রেল স্টেশনে কম্পিউটারাইজড টিকেট ব্যবস্থা চালুর দাবি জানিয়েছে।

নীলসাগর ট্রেনের যাত্রী আপেল বসুনিয়া বলেন, টিকেট না থাকায় অনেক ঝামেলা পোহাতে হয়েছে। অথচ ছাপানো বা কম্পিউটারাইজড টিকেট থাকলে একদিকে যেমন আমাদের বিড়ম্বনা কমতো তেমনি রেলের রাজস্ব বাড়তো।

নীলফামারীর স্টেশন মাস্টার ওবায়দুল ইসলাম জানান, নীলসাগর ট্রেনে ঢাকা অভিমুখে যাওয়ার জন্য সব স্টেশনেরই ছাপানো টিকেট আছে। শুধু চিলাহাটি অভিমুখে যাওয়ার জন্য কোনও টিকেট সরবরাহ করা হয়নি। ফলে হাতে লেখা টিকেট দিতে হচ্ছে।

চিলাহাটি রেল স্টেশন মাস্টার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আমাদের এমনিতে জনবল কম, তার ওপর হাতে লেখা টিকেট দিতে সময় বেশি লাগে। এই স্টেশন থেকে ঢাকা যাওয়ার জন্য আসন বরাদ্দ আছে (সাধারণ) ৪৫টি এবং এসি বাথ দুটি। এর বাইরেও বিভিন্ন স্টেশনে যাওয়ার জন্য টিকেট দিতে হয়।

ডোমারের বুকিং সহকারী মাহবুবার রহমান বলেন, হাতে লেখা টিকেট দিতে সময় বেশি লাগে। এছাড়া দুই মাস আগে স্টেশন মাস্টার আনোয়ার হোসেনকে প্রত্যাহার করে নীলফামারী রেল স্টেশনে নেওয়া হয়েছে। ফলে আমি একা হয়ে গেছি। যে কারণে যাত্রী দুর্ভোগ বেড়েছে।

/জেবি/এসএস/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।