রাত ০৪:৩৯ ; সোমবার ;  ১৮ নভেম্বর, ২০১৯  

‘শেখ হাসিনা ফিরে এসেছিলেন বলেই দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছে’

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে ফিরে এসেছিলেন বলেই বাংলাদেশে আজ গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছে মন্তব্য করেছেন দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৩৪তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে দলের ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা। তারা  বলেন, শেখ হাসিনা জীবন বাজি রেখে দেশে ফিরে এসেছিলেন বলেই দেশ আজ জঙ্গিমুক্ত হয়েছে। দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা পেয়েছে। বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার হয়েছে, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হচ্ছে। শনিবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনিস্টিটিউট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় তারা এসব কথা বলেন।

সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পর আওয়ামী লীগ নেতারা যখন দিশেহারা,  তখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে ফিরে দলের হাল ধরেন।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, বেগম খালেদা জিয়া একটানা ৯২ দিন আন্দোলন সংগ্রামের নামে পেট্রোলবোমা মেরে  নিরীহ মানুষকে হত্যা করেছে। কিন্তু মানুষ হত্যা করে তার ষড়যন্ত্র সফল হয়নি। তিনি বলেছিলেন, সরকারের পতন না ঘটা পর্যন্ত ঘরে ফিরবেন না। পরে আদালতে হাজিরা দিয়ে  ঘরে ফিরতে বাধ্য হয়েছেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে। কেউ বাংলাদেশের অগ্রযাত্রাকে আটকাতে পারবে না।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উদ্দেশে মতিয়া চৌধুরী বলেন, আপনি সিটি নির্বাচন বর্জন করলেন, কিন্তু আপনার দলের কমিশনাররা বিজয়ী হয়ে শপথ গ্রহণ করলেন। তাহলে আমরা কি বুঝব, আপনার দলের নেতারা আপনার কমান্ড মানেন না?

শেখ ফজলুল করিম সেলিম বলেন, ১৯৮১ সালের ১৭ মে শেখ হাসিনা শত বাধা অতিক্রম করে দেশে ফিরে এসেছিলেন বলেই দেশে আজ গণতন্ত্র প্রাতিষ্ঠানিক রূপ পেয়েছে। বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন, সে সময়ে জিয়াউর রহমান আমাকে ডেকে শেখ হাসিনাকে দেশে না ফেরার জন্য বলেছিলেন। তারপরও সেদিন শেখ হাসিনা দেশে ফিরে এসেছিলেন। আর শেখ হাসিনা দেশে ফিরে এসেছিলেন বলেই দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে।

২০১৯ সালের নির্বাচনে বেগম খালেদা জিয়াকে অংশ গ্রহণের আহ্বান জানিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন,  আপনি বারবার ভুল করছেন বলেই আজ আপনার দলের এই অবস্থা। তাই আপনাকে বলি, ২০১৯ সালের নির্বাচনের জন্য আপনি আপনার দল গোছান। আমরা কিন্তু আগামী নির্বাচনের জন্য কাজ শুরু করে দিয়েছি। আমরা ফাঁকা মাঠে গোল দিতে চাই না। আমরা সবাই চাই, আগামী নির্বাচনের মাঠে আপনিও থাকুন।

মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এম এ আজিজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আরও বক্তব্য রাখেন দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ ও অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন প্রমুখ।

/ইএইচএস/এমএনএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।