দুপুর ০৩:২১ ; সোমবার ;  ২০ মে, ২০১৯  

চলে গেলেন বিশিষ্ট সাংবাদিক অমিতাভ চৌধুরী

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

কলকাতা প্রতিনিধি॥

বিশিষ্ট সাংবাদিক, সাহিত্যিক অমিতাভ চৌধুরী আর নেই। শুক্রবার সকালে দক্ষিণ কলকাতার রিজেন্ট এস্টেট সরকারি আবাসনের বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস নেন তিনি। তার বয়স হয়েছিল সাতাশি বছর।

দুপুরেই কলকাতার কেওড়াতলা মহাশ্মশানে তার শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়।

অমিতাভ চৌধুরীর জন্ম বাংলাদেশের সিলেটে। দেশবিভাগের পর পরিবারের সঙ্গে তিনি চলে যান আসামের বরাক উপত্যকায়। পড়াশুনা করেন কলকাতা ও শান্তিনিকেতনের বিশ্বভারতীতে। তার কর্মজীবনের বেশকিছুটা সময় কেটেছে শান্তিনিকেতনে অধ্যাপনা করে। তবে দীর্ঘ চল্লিশ বছরের কর্মজীবনে সাংবাদিক হিসেবে খ্যাতির শীর্ষে পৌঁছেছিলেন তিনি।

অমিতাভ চৌধুরী কাজ করেছেন আনন্দবাজার পত্রিকা, যুগান্তর ও আজকাল পত্রিকায়। মুক্তিযুদ্ধের সময় লেখনির মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের স্বাধীনতার পক্ষে জনমত গড়ে তুলতে অগ্রণী ভূমিকা নেন তিনি।

১৯৮৩ সালে ভারত সরকার তাকে পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত করে। ২০১৩ সালে পশ্চিমবঙ্গ সরকার তাকে সম্মানিত করে বঙ্গবিভূষণে।

সাংবাদিকতার পাশাপাশি রবীন্দ্র গবেষক হিসেবেও যথেষ্ট খ্যাতি লাভ করেন অমিতাভ। গবেষণার মাধ্যমে রবীন্দ্রনাথকে এক নতুন আলোয় বাঙালি সমাজের কাছে তুলে ধরেন তিনি। ছাড়াকার হিসেবেও যথেষ্ট খ্যাতি লাভ করেন অমিতাভ চৌধুরী। এশিয়ার নোবেল খ্যাত ম্যাগসাইসাই পুরস্কারও পেয়েছেন তিনি।

/এমআর/এফএস/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।