রাত ০৮:৫২ ; রবিবার ;  ২১ জুলাই, ২০১৯  

নারীকে এগিয়ে নিতে যাত্রা শুরু মায়াডটকমের

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট॥

ব্র্যাক ও মায়ার যৌথ অংশীদারিত্বে নারীদের কর্মক্ষেত্রের পরিবেশ, স্বাস্থ্য, আইন ও মনোসামাজিক বিষয়ে পরামর্শ সহায়তার উদ্দেশে মায়াডটকমডটবিডি ওয়েবসাইটটির আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর গুলশানে অস্ট্রেলিয়ার হাইকমিশনারের বাসভবনে এ ওয়েবসাইটের উদ্বোধন করেন ব্র্যাকের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারপারসন স্যার ফজলে হাসান আবেদ এবং অস্ট্রেলিয়ার হাইকমিশনার গ্রেগ উইলকক।

অস্ট্রেলীয় সরকারের বৈদেশিক সম্পর্ক ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয় (ডিএফএটি) ও ইউকে এইডের সহযোগিতায় ব্র্যাকের অংশীদারত্বে মায়া এ ওয়েবসাইটটি (http://maya.com.bd/) চালু করেছে।

নারীদের পারস্পরিক সংযুক্ত করা এবং তারা যখন যে ধরণের তথ্য চান সে ধরণের তথ্য দিতে বাংলাদেশে এই প্রথম কোনও ওয়েবসাইট চালু হলো। মায়ার লক্ষ্য হচ্ছে নারীদের চাহিদানুযায়ী তথ্য তাদের জন্য সহজলভ্য করে দেওয়া। এই ওয়েবসাইটের ডিজাইন তৈরি, উন্নয়ন ও বাস্তবায়নের পেছনে রয়েছেন বেশ কয়েকজন নারী প্রকৌশলী ও উদ্যোক্তা। এর মাধ্যমে শহর ও গ্রামাঞ্চলের নারীরা (অথবা যে কেউ) কর্মক্ষেত্রের পরিবেশ, স্বাস্থ্য, আইন এবং মনোসামাজিক বিষয়ে তাদের প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো জানতে পারবেন।

অনুষ্ঠানে অস্ট্রেলিয়ার হাইকমিশনার গ্রেগ উইলকক বলেন, অস্ট্রেলিয়া সরকার সবসময়ই নারীদের অর্থনৈতিক মুক্তি এবং ক্ষমতায়নে উদ্ভাবনী পরিকল্পনা দৃঢ়ভাবে সমর্থন করে। ব্র্যাক-মায়ার এই ওয়েবসাইটের সঙ্গে সম্পৃক্ত হতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ব্র্যাক-মায়ার ওয়েবসাইট ও মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে দেশের অগণিত নারী তাঁদের প্রয়োজনীয় এমন সব তথ্য জেনে নিতে পারবেন, যা কি না তারা স্বাচ্ছন্দ্যে অন্য কাউকে জিজ্ঞেস করতে পারেন না।

এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে শহর ও গ্রামাঞ্চলে যত বেশি সম্ভব কিশোরী ও নারীর কাছে পৌঁছানোর প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন ব্র্যাকের জেন্ডার জাস্টিস অ্যান্ড ডাইভারসিটি কর্মসূচির পরিচালক শীপা হাফিজা। তিনি বলেন, ‘এটা দেশজুড়ে নারীদের তথ্যজগতে প্রবেশ এবং সেবা পাওয়ার পথকে সুগম করবে। একই সঙ্গে জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা প্রতিরোধ ও নারীর ক্ষমতায়নের ক্ষেত্রে ভূমিকা পালন করবে।’

/এমআর/এফএস/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।