দুপুর ০১:৫৮ ; রবিবার ;  ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮  

পাখির গানে মুখরিত অরুনিমা রিসোর্ট গলফ ক্লাব ও ইকোপার্ক

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

সুলতান মাহমুদ, নড়াইল॥

দেশি-বিদেশি বিভিন্ন প্রজাতির পাখির কলকাকলীতে মুখরিত নড়াইলের অরুনিমা রিসোর্ট গলফ ক্লাব। জেলা সদর থেকে প্রায় ৪০ কিলোমিটার দূরে কালিয়া উপজেলার নড়াগাতি থানার পানিপাড়ার নিভৃত পল্লীতে প্রায় ৫০ একর জমির ওপর অরুনিমা রিসোর্ট গলফ ক্লাব ও ইকোপার্ক অবস্থিত।

ছায়া সুনিবিড় মনোমুগ্ধকর পরিবেশে গড়ে ওঠা অরুনিমা রিসোর্ট বিভিন্ন প্রজাতির পাখির অভয়াশ্রম ও নিরাপদ আবাসস্থল হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। হাজারো পাখির ছন্দময় শব্দে মুখরিত হয়ে ওঠে অরুনিমা রিসোর্ট গলফ ক্লাবের সুবিশাল লেক। পাখির কিচির-মিচির শব্দে মনে হবে এটি পাখির দেশ। পাখিপ্রেমী ও টুরিস্টরা পাখির কিচির-মিচির শব্দ শুনতে প্রতিনিয়ত পরিবার-পরিজন, বন্ধু-বান্ধব নিয়ে এই রিসোর্ট পরিদর্শনে আসেন। এছাড়া রিসোর্ট ও ইকোপার্কের মধ্যে ২৩ একর জুড়ে রয়েছে সুবিশাল লেক। পাখির আবাসস্থলের পাশাপাশি প্রকৃতি প্রেমীদের জন্য এখানে রয়েছে বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষ ও ফুলের বাগান। লেকের পাড়ে অবস্থিত ফলজ ও বনজ গাছে প্রতিনিয়ত বসে অতিথি পাখিসহ দেশি পাখির মেলা। দর্শনার্থীদের জন্য লেকের পাড়ে বাঁশ, কাঠ ও খড় দিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে কটেজ ও রেস্টুরেন্ট।

অরুনিমা রিসোর্ট গলফ ক্লাব ও ইকোপার্কের চেয়ারম্যান ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর খবির উদ্দিন আহমেদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, বিভিন্ন দেশ থেকে অতিথি পাখি এ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে সাধারণত নভেম্বর মাস থেকে আসা শুরু করে এবং জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত থেকে আবার স্বদেশে ফিরে যায়। কিন্তু এ রিসোর্টের লেকে এবং পাখির অভয়াশ্রমে বছরে ৮ থেকে ৯ মাস দেশি-বিদেশি বিভিন্ন প্রজাতির পাখি বাস করে। এ কারণে এখানে পর্যটকদের আকর্ষণ রয়েছে বলে তিনি জানান।

ট্যুরিজম রির্সোট ইন্ডাস্ট্রিজ অ্যাসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (ট্রিয়াব) আয়োজিত এবং অরুণিমা রিসোর্ট গলফ ক্লাবের সহযোগিতায় পাখির অভয়াশ্রম ও নিরাপদ আবাসস্থল সুরক্ষাকল্পে রিসোর্টে সম্প্রতি পাখিমেলাও অনুষ্ঠিত হয়।

/বিএল/টিএন/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।