সকাল ০৯:৩৯ ; শুক্রবার ;  ১৫ নভেম্বর, ২০১৯  

ফোলিও পুরস্কার পেলেন অখিল শর্মা

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

ভারতীয় বংশোদ্ভূত আমেরিকান কথাসাহিত্যিক অখিল শর্মা এ বছর ফোলিও পুরস্কার পেয়েছেন তার “ফ্যামিলি লাইফ” নামের আত্মজীবনীমূলক উপন্যাসের জন্য। এটি শেষ করতে তাঁর খরচ হয়েছে দীর্ঘ তেরো বছর। আমেরিকার স্বপ্নে বিভোর একটি পরিবারের হৃদয় মোচড়ানো আখ্যান তুলে ধরা হয়েছে এখানে। এ উপন্যাস সম্পর্কে বিচারকদের প্রধান উইলিয়াম ফিয়েনেস তাঁর মন্তব্যে বলেন, ‘কঠোর নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে বিপর্যয় ও অব্যাহত অস্তিত্ব, স্নেহ-মমতা ও স্বাধীনতা এবং স্বার্থপরতা ও দায়িত্ববোধের মাঝে বিরাজমান মানসিক চাপ সংক্রান্ত জটিলতার পাতন ক্রিয়া ঘটানো হয়েছে উপন্যাসটিতে। উপন্যাসটির শৈলীতে রয়েছে প্রহেলিকামূলক সরলতা। বারবার পড়ার সঙ্গে এটির শৈল্পিক উৎকর্ষের স্তরগুলো খুলে যায় চোখের সামনে।’  
“ফ্যামিলি লাইফ” অখিল শর্মার দ্বিতীয় উপন্যাস। ভারতীয় যুবক অজয় এবং তার পরিবারের কাহিনীতে দেখা যায়, উন্নত জীবনের আশায় তারা দিল্লি থেকে নিউ ইয়র্ক চলে যায়। কিন্তু স্বপ্ন ভেঙে যেতে সময় লাগে না। অজয়ের বড়ভাই সুইমিংপুল দুর্ঘটনায় পতিত হওয়ার পর থেকে তাকে চব্বিশ ঘণ্টা সেবার মধ্যে রাখতে হয়। 
ম্যানবুকার পুরস্কারের সমমর্যাদার ফোলিও পুরস্কার প্রবর্তনের দ্বিতীয় বছরে পুরস্কার পেলেন অখিল শর্মা। ইংরেজি ভাষায় লেখা বিশ্বের যে কোনো দেশের কথাসাহিত্যিক এ পুরস্কারের জন্য বিবেচিত হতে পারেন। পুরস্কারের মূল্যমান চল্লিশ হাজার পাউন্ড। এ বছর এ পুরস্কারের জন্য প্রাথমিকভাবে অংশগ্রহণ করেন আশিজন কথাসাহিত্যিক। আলি স্মিথ, পিটার ক্যারি, লিডিয়া ডেভিস, এডওয়ার্ড সেন্ট অবিন, গ্রাহাম সুইফ্ট, জোনাথস লেথেম, লরি মুর, জেরি পিন্টোসহ আরো অনেক বিখ্যাত এবং কয়েকজন নবীন লেখক ছিলেন এ তালিকায়। সর্বশেষ সংক্ষিপ্ত তালিকায় স্থান পান আটজন এবং শেষে পুরস্কার জয় করেন অখিল শর্মা। 
অখিল শর্মার জন্ম দিল্লিতে, ১৯৭১ সালে। তিনি ১৯৭৯ সালে আমেরিকা চলে যান। তাঁর ছোটগল্প প্রকাশিত হয়েছে ‘নিউ ইয়কার’ এবং ‘আটলান্টিক মান্থলি’-তে। তাঁর প্রথম উপন্যাস “অ্যান ওবিডিঅন্ট ফাদার”। ২০০১ সালে এ উপন্যাসটি হেমিংওয়ে ফাউন্ডেশন পিইএন অ্যাওয়ার্ড লাভ করে। ২০০৭ সালে ‘গ্রান্টা’র জরিপে আমেরিকার শ্রেষ্ঠ তরুণ ঔপন্যাসিকদের অন্যতম নির্বাচিত হন তিনি।  

সূত্র : দ্যা ফোলিও প্রাইজ ডট কম

গ্রন্থনা : দুলাল আল মনসুর

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।