সন্ধ্যা ০৬:৩৪ ; বুধবার ;  ১৬ অক্টোবর, ২০১৯  

বিদ্যুৎ আমদানিতে ২৮ কিমি লাইন নির্মাণে চুক্তি

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

ভারতের ত্রিপুরা থেকে বিদ্যুৎ আনতে কুমিল্লা উত্তর থেকে ত্রিপুরা পর্যন্ত উচ্চ বিভবের (হাইভোল্টেজ) সঞ্চালন লাইন নির্মাণে রবিবার পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশ (পিজিসিবি) এবং দক্ষিণ কোরিয়ার জিএস ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড পাওয়ার কন্সট্রাকশনের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে।

পিজিসিবি’র পক্ষে কোম্পানি সচিব মো. আশরাফ হোসেন এবং জিএস ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের পক্ষে প্রকল্প ব্যবস্থাপক জং দায়ে লিম চুক্তিপত্রে সই করেন।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে পিজিসিবি ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসুম-আলবেরুনী, নির্বাহী পরিচালক (ওঅ্যাণ্ডএম) তপন কুমার রায়, নির্বাহী পরিচালক (এইচআর) মোহাম্মদ শফিকউল্লাহ, প্রধান প্রকৌশলী (প্রকল্প) ফরিদ উদ্দিন আহমেদ, মহাব্যবস্থাপক (অর্থ) মোহাম্মদ সেলিমসহ পিজিসিবি এবং জিএস ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

পিজিসিবির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, চুক্তি অনুযায়ী আগামী ১০ মাসের মধ্যে কুমিল্লা (উত্তর) সাবস্টেশন থেকে ভারত সীমান্ত পর্যন্ত ২৮ কিলোমিটার ৪০০ কেভি সঞ্চালন লাইন নির্মাণ করে পিজিসিবি’র কাছে হস্তান্তর করবে জিএস ইঞ্জিনিয়ারিং। এ কাজের চুক্তিমূল্য ৯৮ কোটি ৬১ লাখ টাকা। বাংলাদেশ সরকার ও পিজিসিবি’র অর্থায়নে এ কাজ চলবে।

ভারতের পালাটানা কেন্দ্রে উৎপাদিত বিদ্যুৎ থেকে ১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ বাংলাদেশে আমদানি করতে পিজিসিবি’র গৃহীত 'ত্রিপুরা (ভারত) - কুমিল্লা দক্ষিণ (বাংলাদেশ) গ্রিড ইন্টারকানেকশন প্রজেক্ট' শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় পুরো কাজটি সম্পন্ন করা হবে।

একই প্রকল্পের জন্য গত ৮ মার্চ কুমিল্লার দক্ষিণ থেকে উত্তর সাবস্টেশন পর্যন্ত ১৯ কিলোমিটার দীর্ঘ ১৩২ কেভি দ্বৈত সঞ্চালন (ডাবল সার্কিট) লাইন নির্মাণে একটি ভারতীয় প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি করে পিজিসিবি।

প্রসঙ্গত, কুমিল্লা থেকে ত্রিপুরার পালাটানা কেন্দ্র পর্যন্ত আন্তঃদেশিয় সঞ্চালন লাইনের ভারত অংশের নির্মাণকাজ সম্পন্ন করার দায়িত্ব ভারতীয় কর্তৃপক্ষের।

/ওএফ/এফএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।