সকাল ০৯:১৯ ; রবিবার ;  ০৮ ডিসেম্বর, ২০১৯  

মরছে গাছ, জানে না বন বিভাগ

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি॥

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া-হোসেনপুর দুই উপজেলার আঞ্চলিক সড়কের তিন কিলোমিটার রাস্তার দু’পাশে সারি সারি গাছের মধ্যে প্রায় ১৫০টি গাছ মরে গেছে। কিন্তু জেলা বন বিভাগ সংরক্ষণ অফিস এ ব্যাপারে কিছুই জানে না।

সরেজমিনে দেখা গেছে, পাকুন্দিয়া থেকে হোসেনপুর আঞ্চলিক সড়কের আয়তন ৯ কিলোমিটার। এই রাস্তায় দু’পাশে লাগানো আছে মেহগনি, আকাশমণি, শিশু গাছসহ বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় ৪০০-৫০০টির মতো। এরই মধ্যে এই সড়কের তিন কিলোমিটার রাস্তার প্রায় ১৫০টি গাছ মরে গেছে। মারা যাওয়া গাছগুলো আবার রাতের আঁধারে দুর্বৃত্তরা কেটে নিয়ে যাচ্ছে।

পাকুন্দিয়া উপজেলার চর পাকুন্দিয়া গ্রামের বাসিন্দা ব্যবসায়ী ফিরোজ মিয়া জানান, বন বিভাগের কার্যকর কোনও পদক্ষেপ না থাকায় দিন দিন মরে যাওয়া গাছের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। যে গাছগুলো মরে গেছে, সেগুলো কেটে নিয়ে বন বিভাগ নতুন করে গাছ রোপন করে দিলে সড়কের পরিবেশটা সুন্দর থাকতো।

তিনি আর জানান,কর্তৃপক্ষের উদাসীনতার কারণে মরে যাওয়া গাছগুলো দুর্বৃত্তরা কেটে নিয়ে যাচ্ছে।

কিশোরগঞ্জ জেলা বন বিভাগ সংরক্ষণ অফিসের ফরেস্ট রেঞ্জার নারায়ণ চন্দ্র দাস বলেন, 'গাছ মরে যাওয়ার বিষয়টি আমরা জানি না। বিষয়টি আমরা দেখব।'

প্রসঙ্গত, ১৯৯১ সালে উপজেলা সদরের হাপানিয়া গ্রামের ভূমিহীন সমিতির মাধ্যমে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা প্রশিকা বন বিভাগের সহযোগিতায় পাকুন্দিয়া-হোসেনপুর আঞ্চলিক সড়কের উভয় পাশে বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষ রোপণ করে।

/বিএল/এসটি/ 

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।