রাত ১১:০২ ; শুক্রবার ;  ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯  

নানা আয়োজনে পালিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক নারী দিবস

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

উদিসা ইসলাম॥

নানা আয়োজনে পালিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক নারী দিবস। বিভিন্ন দেশের মতো বাংলাদেশেও বিভিন্ন সংগঠন নানা আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে রবিবার দিবসটি পালন করেছে। দিবসটি উপলক্ষে প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মোমবাতি জ্বালিয়ে কর্মসূচি সূচনা করেছে বিভিন্ন সংগঠন।

এবারের নারী দিবসের প্রতিপাদ্য ‘নারীর ক্ষমতায়ন, মানবতার উন্নয়ন’। দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ এক বাণীতে বাংলাদেশসহ বিশ্বের আপামর নারীদের আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বাণীতে বলেছেন, এবারের প্রতিপাদ্য যথার্থ ও সময়োপযোগী হয়েছে যা সমাজে নারীর অবস্থান ও মানবাধিকার সুদৃঢ় করতে তাৎপর্যপূর্ণ অবদান রাখবে।

১৮৫৭ সালের ৮ মার্চ যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের একটি সুতা কারখানার হাজার হাজার নারী শ্রমিক ন্যায্য মজুরি, পুরুষের চেয়ে কম বেতনে কাজ না করা এবং সমঅধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য আন্দোলনে নেমেছিলেন। এর অর্ধশত বছর পর ১৯১০ সালে নারীনেত্রী ক্লারা জেটকিন, ডেনমার্কের কোপেনহেগেনে ঘোষণা দেন নারী দিবস উদযাপনের। এরপর থেকে নারীর অধিকারের দিবস হিসেবে সারা বিশ্বে পালিত হয়ে আসছে দিনটি।

সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মূল অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকির সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ইউএনএফপিএ‘র প্রতিনিধি আর্জেন্টিনা মাতাভেল পিচিন।

আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে ওয়্যারবি ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশন, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন ও বাংলাদেশ অভিবাসী অধিকার ফোরাম যৌথভাবে আয়োজিত এক সভায় শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য মো. ইসরাফিল আলম বলেন, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী একজন নারী, বিরোধীদলীয় প্রধানও নারী, স্পিকার নারী, সেনাবাহিনীসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদেও নারীরা অধিষ্ঠিত।

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার নারী উন্নয়নে বিভিন্ন কর্মক্ষেত্র সৃষ্টিতে নানা কাজ করে যাচ্ছে। রবিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত ‘অভিবাসী নারী শ্রমিকের অধিকার ও মর্যাদা সুরক্ষা’ বিষয়ক মতবিনিময় সভায় এ মন্তব্য করেন।

এদিকে, সংযুক্ত মহিলা পরিষদের উদ্যোগে আজ ৮ মার্চ সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক সমাবেশ ও র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তারা বলেন, নারী-পুরুষের সমধিকার বাস্তবায়নে পৈত্রিক সম্পত্তিতে ছেলে-মেয়েদের সমান অধিকার পূর্ণ বাস্তবায়ন, জাতীয় সংসদের মহিলা আসন ৫০ ভাগ নিশ্চিত করতে হবে এবং নারীদের সামাজিক মর্যাদা নিশ্চিত করতে হবে। তাদের দাবি আন্তর্জাতিক নারী দিবসে সরকারি ছুটি ঘোষণা করতে হবে এবং সকল নারীদের জন্য মাতৃত্বাকালীন ছুটি বেতনসহ ৬ মাস ঘোষণা করতে হবে।

জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুগল তার ডুডলেও বিভিন্ন পেশায় নারীদের অর্জনের প্রতিকৃতি দিয়ে আজকের দিনটি উদযাপন করছে। নারীর বিভিন্ন প্রচেষ্টার প্রতি সম্মান জানাতে বিভিন্নক্ষেত্রে তাদের অর্জন ও অংশগ্রহণ তুলে ধরা হয়েছে এতে। এর আগে ২০১৪ সালে গুগল তার ডুডলে বিশ্বের ১০০ নারীকে নিয়ে একটি ভিডিওভিত্তিক ডুডল তৈরি করে। নতুন ডুডলে বিভিন্ন কাজে নিয়োজিত, বিচারক, ডাক্তার, চিত্রশিল্পী, আইনজীবী, বিজ্ঞানী, খেলাধুলা ইত্যাদিতে সাফল্য অর্জনকারী নারীদের প্রতিকৃতি দেখা যায়।

 

/ইউআই/এফএ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।