বিকাল ০৫:৪৬ ; সোমবার ;  ১৪ অক্টোবর, ২০১৯  

অাশা করবো আমাদের টপ অর্ডার যেন জ্বলে ওঠে

প্রকাশিত:

হাবিবুল বাশার॥

সংযুক্ত আরব আমিরাতকে হারিয়ে দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়ে স্বরূপে ফিরে এলো পাকিস্তান। একটু দেরিতে হলেও এটাই তাদের টুর্নামেন্টে ফিরে আসার লক্ষণ। এ ম্যাচ পরের ম্যাচের জন্যে অনেক রসদের ভাণ্ডার হিসেবে অাবির্ভূত হবে। যেমন দল গুছিয়ে নেওয়া, ব্যাটসম্যানদের ফর্মে ফেরা। বলতে গেলে সঠিক কাজটা সঠিক সময় করতে পারাতেই তাদের কে এখন অনেক অাত্মবিশ্বাসী মনে হচ্ছে।

দিনের দ্বিতীয় খেলায় খুব সহজেই অাফগানিস্তানকে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। গত ম্যাচ কিউইদের সঙ্গে প্রতিরোধ দিলেও হারের মুখ দেখেছিল অসিরা। তবে এ ম্যাচে আফগানিস্তানকে কোনও সুযোগই দেয়নি। ম্যাচটিতে মনে হয়েছিল অারেকটি দ্বিশতক দেখতে যাচ্ছি। ডেভিড ওয়ার্নারের ব্যাটিং তাণ্ডব সেরকমই অাভাস দিচ্ছিল। শেষ পর্যন্ত সেটা না হলেও সামনে কোনও ম্যাচে দ্বিশত করলে অবাক হবো না।

অাজকে কিন্তু অসিরা ব্যাটিংয়ের সঙ্গে বোলিংয়ে সমান আগ্রসী মনোভাব দেখিয়ে খেলেছে। বিশেষ করে মিচেল স্টার্কের বোলিংয়ে মুগ্ধ হয়েছি। সঙ্গে জনসনের বোলিং দেখে মনে হয়েছে ও আবার তার ছন্দে ফিরেছে। নিয়েছে সর্বোচ্চ ৪ উইকেট। ওদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ত্রাস সৃষ্টিকারী অস্ট্রেলিয়ার সামনে আফগানরা অসহায়ই ছিল।

পরের ম্যাচে অাগামী কাল ভোর রাতে আমাদের প্রতিপক্ষ স্কটল্যান্ড। ম্যাচটি নিয়ে অামি বলবো ছেলেদের চাপ নেওয়ার তেমন কিছু নেই। নেলসনের উইকেটে অামরা আমাদের খেলাটা উপহার দিতে পারলে চিন্তার ভাঁজ ফেলার কোনও সুযোগ থাকবে না। তবে পরিকল্পনা মাফিকই খেলতে হবে। অার প্রতিপক্ষকে সমীহ করেই মাঠে নামতে হবে। না হলে মূল্য দিতে হবে। ম্যাচে আমাদের পাওয়ার এবং শিক্ষা নেওয়ার অনেক কিছু থাকবে।

আশা করবো, অাগামীকাল আমাদের টপ অর্ডার জ্বলে উঠবে। কারণ সেখান থেকে রানের যোগান পাচ্ছি না। শুরুর দিকের ব্যাটসম্যানরা ভালো করতে না পারলে বড় দলের সঙ্গে জয় পাওয়া আমাদের জন্য কঠিন হয়ে যাবে। আজকে পাকিস্তান যেভাবে আমিরাতের সঙ্গে খেলেছে। আমি চাইবো মাশরাফিরা কাল স্কটিশদের সঙ্গে তেমন প্রদর্শন করুক। সঙ্গে ফিল্ডিংয়েও আরেও উন্নতি করতে হবে।

/এনএস/এফঅাইঅার/এসএম/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।