রাত ০৩:৫৭ ; রবিবার ;  ২১ জুলাই, ২০১৯  

একের মাথা অন্যের শরীরে!

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বিদেশ ডেস্ক॥

চোখ, কান, নাক, মুখ প্রতিস্থাপন তো হলো। এবার আস্ত মাথাটাই ট্রান্সপ্ল্যান্ট করতে চান গবেষকরা। মানে একের মাথা অন্যের ঘাড়ে। ঘটনাটাকে ড. ফ্রাঙ্কেনস্টাইনের কাণ্ড মনে হলেও অাগামী দুই বছরের মধ্যেই নাকি এটা সম্ভব করতে চলেছেন ইতালির চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা।

চলতি গ্রীষ্মেই ওই গবেষকরা হাতে নিচ্ছেন বিশেষ এক প্রকল্প। মূল পরিকল্পনায় আছেন ইতালির তুরিন অ্যাডভান্সন্ড নিউরোমডুলেশন গ্রুপের বিজ্ঞানী ড. সার্জিও ক্যানাভেরো। ২০১৭ সালের মধ্যে একজনের শরীরে অন্যের মাথা বসাবেন তিনি।

মাথা প্রতিস্থাপনের এই প্রকল্প সফল হলে গ্রহীতা পাবে সম্পূর্ণ নতুন একটা শরীর। এক ঝটকায় সেরে যাবে যাবতীয় রোগ-বালাই। বেড়ে যাবে আয়ুও! তবে সমালোচকদের মতে, এক্সপেরিমেন্টটি নিছক 'ফ্যান্টাসি' ছাড়া আর কিছু নয়।

নিউ সায়েন্টিস্ট ম্যাগাজিনে প্রকাশিত প্রতিবেদনে ড. ক্যানাভেরো জানান, এই অস্ত্রোপচারের ক্ষেত্রে প্রধান সমস্যাটা হলো নতুন শরীরের সঙ্গে মগজ ও স্নায়ুকে খাপ খাওয়ানো। মাথা তো শুধু দাতার শরীরে কেটে এনে বসিয়ে দিলেই হবে না, মেরুদণ্ডের কশেরুকার সঙ্গে যুক্ত করতে হবে ঘাড় বেয়ে নেমে আসা স্নায়ু। আবার দাতার শরীর আগন্তুক ভেবে বর্জন করতে পারে গ্রহীতার মস্তিষ্ক। আবার ডোনার মারা গেলে অক্সিজেনের অভাবে তার শরীরের কোষগুলোও দ্রুত মরতে থাকে। সেগুলোকে সতেজ রাখাও গুরুত্বপূর্ণ।

এদিকে, ক্যানাভেরোর এই পরীক্ষায় গিনিপিগ হতে রাজি হয়েছেন অনেকে। অর্থাৎ মৃত দাতার শরীরে নিজেকে আবিষ্কার করতে তারা উন্মুখ!

অাগামী জুনে মেরিল্যান্ডের অামেরিকান অ্যাকাডেমি অব নিউরোলজিক্যাল অ্যান্ড অর্থপেডিক সার্জন (এএএনওএস) শীর্ষক এক সংবাদ সম্মেলনে এ প্রকল্পের বিস্তারিত জানাবেন ড. ক্যানাভেরো।

সূত্র: দ্য মিরর

/এসএম/এফএ


 


 


 

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।