বিকাল ০৫:০২ ; মঙ্গলবার ;  ২১ মে, ২০১৯  

নিল প্যাট্রিক হ্যারিসনের স্যুট মহড়া

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

লাইফস্টাইল ডেস্ক ॥

হলিউডের সবচেয়ে ঝলমলে রাতে হোস্ট ছিলেন হ্যারি। যেনতেন আটপৌরে পোশাকে তো আর হাজির হওয়া যায় না। তাই মেকওভার স্টাইলিস্ট স্যাম স্পেকটরের সঙ্গে তিন মাসের চেষ্টায় নির্ধারিত টাক্সিডো পরেই মঞ্চে চড়েছেন তিনি। কেতা দুরস্তিতে যেন অন্যান্য তারকাদের চেয়ে ঘাটতি না পড়ে সেটাও নিশ্চিত করেছেন।

মূলত তার পছন্দেই তৈরি হয়েছে এসব স্যুট ও টাক্সিডো। কাস্টম মেড এসব আউটফিটের জন্য তাই মাপ দিতে হয়েছে একাধিক ডিজাইনারের কাছে। ইতালিয়ান ক্যুসিনেলি টাক্সিডো গড়তে গিয়ে একে একে তৈরি হয়েছে ভেলভেট টম ফোর্ড, বারগ্যান্ডি ভ্যালেন্টিনো, কাশমির ক্যুসিনেলি, শল কলার ডানহিল আর জেগনা কচার-এর স্টেফানো পিলাতি'র কাস্টম মেড টাক্সিডো। ধূসর, নীল, কালো রং-এও ছিল বৈচিত্রের ছড়াছড়ি।

শুধু স্যুট গড়ে দিয়েই কেটে পড়েননি স্যাম। অস্কার চলাকালিন পুরো সময়টাতে ব্যাকস্টেজে হাজির ছিলেন। যেন প্যাট্রিককের ফিটফাটের কমতি না হয়। যারা সরাসরি অস্কার দেখতে পাননি তাদের জ্ঞাতার্থে বলছি। হ্যারিসন মোট কবার স্যুট বদল করেছেন জানেন? পাঁচ বার। এবং প্রতিবারই তার সঙ্গে মিলিয়ে বদল করেছেন নেক টাই, ঘড়ি, এমনকি জুতাও। স্যুট বদলালে কি হবে স্যুটের ল্যাপেল কিন্তু খুব বদলাতে পারেননি তিনি। সিঙ্গেল ব্রেস্ট, এক বোতাম, পিক ল্যাপেল আর শল ল্যাপেলেই সীমাবদ্ধ ছিল তার স্যুট মহড়া।

আরও একটা প্রাপ্তি ঘটেছে তার। বেনেডিক্ট কাম্বারব্যাচদের সঙ্গে ফ্যাশন ম্যাগাজিন জিকিউ-এর শীর্ষ দশ বেস্ট ড্রেসড ম্যান-এর তালিকায় ঢুকে গেছেন তিনি। সূত্র: জিকিউ

/এএলএ/এফএএন/ 

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।