রাত ১০:৫২ ; মঙ্গলবার ;  ২৫ জুন, ২০১৯  

কবে আসবে সেই সাত দিন : এরশাদ

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট॥

আওয়ামী লীগের নেতাদের প্রতিশ্রুত দেশ স্বাভাবিক হওয়ার সাত দিন কবে আসবে বলে প্রশ্ন তুলেছেন জাতীয় পার্ট‌‌‌ির (জাপা) চেয়ারম্যান চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। তিনি বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে বারে-বারে এমন কথা বলা হলেও দেশে এখনও স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরে আসেনি। কত সাত দিন গেল, কত মানুষ পুড়ে ছাই হয়ে গেল। তবু সাত দিন আর এলো না। রবিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ইনস্টিটিউট অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স (আইডিবি) মিলনায়তনে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।

বিএনপির সমালোচনা করে এরশাদ বলেন, যারা আমাকে ২৬ বছর শহীদ মিনারে যেতে দেয়নি, আজ তারা শহীদ মিনারে যেতে পারছে না। আমার সঙ্গে যে অন্যায় করা হয়েছিল, তাদের সঙ্গে সেই একই অন্যায় করা হচ্ছে। বিএনপি নেত্রীর উদ্দেশে তিনি বলেন, মানুষ হত্যার রাজনীতি বন্ধ করুন। পেট্রোল বোমা মেরে জ্যান্ত মানুষকে আর হত্যা করবেন না। বর্তমানে দেশের সাধারণ মানুষ ঘরে থাকলে ক্ষুধার আগুন, আর বাইরে পেট্রোল বোমার আগুনে জ্বলছে।

শেখ হাসিনা ও খালেদা জিয়ার উদ্দেশে এরশাদ বলেন, দেশের চলমান সংকট নিরসনে আপনারা ব্যর্থ হলে দুজনই ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হবেন। তিনি বলেন, মানুষের মনে আজ এত ঘৃণা যে, তারা এই দুনেত্রীকে পছন্দই করছে না।

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, বড় দুদলকে নয়, জনগণ এখন জাতীয় পার্টিকে চায়। দেশের মানুষ এখন জাতীয় পার্টিকে ক্ষমতায় দেখতে চায়। সে অনুযায়ী জাতীয় পার্টিকে আগের চেয়ে বেশি শক্তিশালী করার পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। যে দিকে দৃষ্টি দেই, সব দিকেই এখন জাতীয় পার্টির জয়জয়কার।

সাবেক এই রাষ্ট্রপতি বলেন, সর্বত্র বাংলা চালুর নির্দেশ আমি দিয়েছিলাম। আমি ক্ষমতায় থাকার সময় সব ক্ষেত্রে রাষ্ট্র ভাষা বাংলার ব্যবহার নিশ্চিতে কাজ করেছি। এ অবদান দেশের মানুষ জানে।

জাপার মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুর সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, উত্তরের সভাপতি এসএম ফয়শাল চিশতী, সংসদ সদস্য এম এ মান্নান, সাইদুর রহমান টেপা, হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রেজাউল ইসলাম ভুঁইয়া, নুরুল ইসলাম নুরু প্রমুখ।

/ এসটিএস/এমএনএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।