বিকাল ০৪:৫১ ; বৃহস্পতিবার ;  ২৩ মে, ২০১৯  

বাংলাদেশ দল একটা পরিবারের মতো

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

মুসা ইব্রাহীম, সিডনি থেকে॥

আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫ খেলতে এসে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল যে দু’টি ওয়ার্মআপ ম্যাচ খেলছে, তার শেষ ম্যাচে আগামীকাল আয়ারল্যান্ডের মুখোমুখি হচ্ছে টাইগাররা। সিডনি’র যে ব্ল্যাকটাউন ইন্টারন্যাশনাল স্পোর্টসপার্কে পাকিস্তানের সঙ্গে ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল, সেখানেই সকাল সাড়ে ন’টায় শুরু হবে এই দ্বৈরথ।

অস্ট্রেলিয়ার আসার পর ব্রিসবেনে অস্ট্রেলিয়া একাদশের সঙ্গে দু’টি অনুশীলন ম্যাচ আর পাকিস্তানের সঙ্গে প্রথম ওয়ার্মআপ ম্যাচের সবগুলোতেই হারের শিকার হওয়া বাংলাদেশ দল কি মানসিকভাবে একটু পিছিয়ে আছে? এমন প্রশ্নের জবাবে ব্ল্যাকটাউনের সেই ওভাল মাঠের পাশে অনুশীলনরত বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়দের সঙ্গে থাকা মিডিয়া ম্যানেজার রাবিদ ইমাম বলেন, "ছেলেদের কাছে প্রতিটি ম্যাচই নতুন। তারা প্রতিটি ম্যাচ নতুনভাবে গ্রহণ করে মাঠে নামবে।"

এই ম্যাচের মাধ্যমে বাংলাদেশ দল অস্ট্রেলিয়ায় হারের বৃত্ত থেকে বের হয়ে আসতে পারবে কি না, জানতে চাইলে তিনি বিশ্বকাপের মূল ম্যাচ শুরুর আগে সর্বশেষ এই ওয়ার্মআপ ম্যাচের মধ্য দিয়ে দল ইতিবাচক ট্র্যাকে ফিরবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

আজ বুধবার সিডনি শহরের একটি হোটেল থেকে বাসে করে দল সকাল দশটায় অনুশীলন মাঠে পৌঁছায়। দলের কোচ চন্দ্রিকা হাতুড়াসিংহে, টিম ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন, সহকারী কোচ রুয়ান কালপাগে, বোলিং কোচ হিথ স্ট্রিক, ফিল্ডিং কোচ রিচার্ড হ্যালসাল, টিম ফিজিও বায়েজিদ ইসলামসহ বাকি সবাই বেশ সিরিয়াসলি ফিল্ডিং, বোলিং, ব্যাটিং প্র্যাকটিস করালেন খেলোয়াড়দেরকে। এদিন প্রায় দেড়টা পর্যন্ত অনুশীলনে সময় ব্যয় করে দল।

কোচ-টিম ম্যানেজার বিরোধ প্রসঙ্গে রাবিদ ইমাম বলেন, ''বাংলাদেশ দল একটা পরিবারের মতো ছিল এবং আছে। এখানে এমন কোনও বিরোধ নেই। দলে সবাই সবার ব্যাপারে খুবই সচেতন এবং আমরা খেলার ব্যাপারে মুখিয়ে আছি।''

আফগানিস্তান দল অস্ট্রেলিয়ায় এসেই বাংলাদেশকে হারিয়ে বিশ্বকাপের প্রথম অঘটনের জন্ম দেবে বলে যে ঘোষণা দিয়েছে, এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ দলের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি বলেন, ''আসলে খেলাটা মাঠেই খেলতে হয়। মাঠের খেলার আগে এমন মন্তব্য করা বা তাতে প্রতিক্রিয়া জানাতে যাওয়া যুক্তিহীন। আমরা মাঠে খেলেই নিজেদেরকে প্রমাণ করবো।''

এ পর্যন্ত বাংলাদেশ দলের মূল শক্তির জায়গাটা কোনটা– জানতে চাইলে রাবিদ জানান, এই মুহূর্তে ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং- সব মিলিয়ে বাংলাদেশ দলটা একটা ব্যালান্সড দল। তবে দু’একটা সামান্য সমস্যা যেটুকু রয়েছে, তা বিশ্বকাপের মূল ম্যাচের আগে দল কাটিয়ে উঠবে বলে তিনি মনে করেন। সেই সঙ্গে বিশ্বকাপের প্রতিটি ম্যাচে পূর্ণশক্তির বাংলাদেশ দল মাঠে নামবে বলে রাবিদ জানান।

 

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।