রাত ১২:৪৯ ; রবিবার ;  ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০  

ফরাজী উত্থাপিত সংবিধানের ১৭তম সংশোধন বিল নাকচ

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট॥

সংবিধানের ৭০ অনুচ্ছেদ সংশোধনকল্পে সংসদ সদস্য রুস্তম আলী ফরাজী উত্থাপিত 'সংবিধান (সপ্তদশ সংশোধন) বিল, ২০১৪' নাকচ করেছে সংসদীয় কমিটি।

বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত বেসরকারি সদস্যদের বিল এবং বেসরকারি সদস্যদের সিদ্ধান্ত-প্রস্তাব সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকে ফরাজীর বিলটি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনার পর তা সংসদে উত্থাপন না করার সুপারিশ করে রিপোর্ট উপস্থাপনের সুপারিশ করা হয়। এর মাধ্যমে বিলটি কার্যত নাকচ হয়ে গেল।

বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি মো: জিল্লুল হাকিম। অন্যদের মধ্যে কমিটি সদস্য নূর-ই-আলম চৌধুরী, বিএম মোজাম্মেল হক, ড. মোহাম্মদ শামছুল হক ভূঁইয়া, মোহাম্মদ আব্দুল মুনিম চৌধুরী এবং সানজিদা খানম বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন। বিশেষ আমন্ত্রণে রুস্তুম আলী ফরাজীও বৈঠকে যোগ দেন।

উল্লেখ্য, সংবিধানের ৭০ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, 'কোনও নির্বাচনে কোনও রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরূপে মনোনীত হইয়া কোনও ব্যক্তি সংসদ-সদস্য নির্বাচিত হইলে তিনি যদি- (ক) উক্ত দল হইতে পদত্যাগ করেন, অথবা (খ) সংসদে উক্ত দলের বিপক্ষে ভোটদান করেন, তাহা হইলে সংসদে তাহার আসন শূন্য হইবে, তবে তিনি সেই কারণে পরবর্তী কোনও নির্বাচনে সংসদ-সদস্য হইবার অযোগ্য হইবেন না।”

“সংসদে উক্ত (নিজ দলের) দলের বিপক্ষে ভোটদান করলে আসন শূন্য হবে” এই বিধান বাতিলের প্রস্তাব করে ফরাজী গত বছর (২০১৪ সালে) সংবিধান সংশোধনী বিলটি উত্থাপন করেন।

বিলের বিষয়ে জানতে চাইলে ফরাজী বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, আমি সকল সংসদ সদস্যদের অধিকার রক্ষার স্বার্থে বিলটি উত্থাপন করেছিলাম। কিন্তু সংসদীয় কমিটি তা সুপারিশ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

কমিটির এ ধরনের সিদ্ধান্তের এখতিয়ার নিয়ে প্রশ্ন তুলে স্বতন্ত্র এ সংসদ সদস্য বলেন, 'যে কোনও কমিটির কাজ হচ্ছে কোনও বিল গেলে তাতে ভুল-ভ্রান্তি থাকলে বা সংশোধনের প্রয়োজন পড়লে সেটা করে সংসদে রিপোর্ট উত্থাপন করা। তাদের উপস্থাপিত বিল পাশ হবে কিনা তা দেখবে সংসদ। কিন্তু কমিটি বিলের রিপোর্ট উপস্থাপন না করার সিদ্ধান্ত নিতে আইনগতভাবে পারে কী না তা নিয়ে আমার সন্দেহ রয়েছে।'

কমিটির এখতিয়ারের প্রসঙ্গটি নিয়ে আগামীতে অধিবেশনে কথা বলবেন বলে জানান এই স্বতন্ত্র সাংসদ।


 

/ইএইচএস/এমএনএইচ/এফএ

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।