রাত ০৩:৫৯ ; মঙ্গলবার ;  ২৩ জানুয়ারি, ২০১৮  

অবরোধে ঠাকুরগাঁওয়ে জ্বালানি তেল সংকট চরমে

প্রকাশিত:

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি॥

বিএনপি নেতৃত্বাধীন টানা অবরোধের কারণে ঠাকুরগাঁও জেলায় পেট্রোল ও ডিজেলের সংকট চরম আকার ধারণ করেছে। জ্বালানি তেলের মজুদ না থাকায় অনেক পেট্রোল পাম্প বন্ধ রাখা হয়েছে।

জেলায় খোলাবাজারে প্রতি লিটার পেট্রোল ১১০ টাকা ও ডিজেল ৮৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এতে করে যেসব যানবাহন ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছিল সেগুলোও জ্বালানি তেলের সংকটে অচল হয়ে পড়েছে।

কৃষকরা চলতি বোরো মওসুমে জ্বালানি তেল নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন। পাম্পে তেল না থাকায় নগরীর ২৩টি পেট্রোল পাম্পের মধ্যে ১০টি বন্ধ রয়েছে।

জেলা পেট্রোল পাম্প মালিক সমিতি জানিয়েছে, জ্বালানি তেলের মজুদ কমে যাওয়ায় বেশিরভাগ পাম্প বন্ধ রয়েছে। আর যেসব পাম্প চালু আছে সেসব পাম্পের তেলের মজুদ প্রায় শূন্যের কোঠায় নেমে এসেছে। এগুলো আগামী দু'একদিনের মধ্যে বন্ধ হয়ে যাবে। জেলা প্রশাসনকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। জেলা প্রশাসন পুলিশের স্কট দিয়ে ডিপো থেকে জ্বালানি তেল সরবরাহের আশ্বাস দিয়েছে।

অবরোধের কারণে অনেক পেট্রোল পাম্প মালিক নিজেরাই ঝুঁকি নিয়ে ডিপো থেকে তেল নিয়ে এসে ব্যবসা করছেন বলে জানান ব্যবসায়ী আব্দুল কাদের।

তিনি বলেন, 'ডিজেল সংকট দেখা দেওয়ায় কৃষকরা তাদের জমিতে সেচ দিতে পারছেন না। ডিজেলের জন্য পেট্রোল পাম্পগুলোতে ভিড় করলেও তা বন্ধ থাকায় খালি হাতে তাদের ফিরতে হচ্ছে।'

বাঁধন কাকন পাম্পের ম্যানেজার হোসেন জানান, অবরোধের কারণে তিনি বাঘাবাড়ি থেকে তেলবাহী গাড়ি নিয়ে আসতে পারছেন না। অবরোধ অব্যাহত থাকলে তেল সংকটের কারণে পাম্প বন্ধ করে দিতে বাধ্য হবেন বলে তিনি জানান।

ঠাকুরগাঁও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মঞ্জুরুল আলম প্রধান বলেন, 'জেলায় ডিজেলের মজুদ রয়েছে। পুলিশের স্কট দিয়ে তেলবাহী গাড়ি আনা হচ্ছে।'

/এসএ/একে/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।