রাত ০১:৫৪ ; রবিবার ;  ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০  

৫ জানুয়ারি বিক্ষোভ করবে খেলাফত মজলিস

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট

৫ জানুয়ারি ভোটাধিকার হরণ দিবস পালন করবে খেলাফত মজলিস। সেদিন সারাদেশে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করবে দলটি। দলের আমীর মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টায় গুলিস্তানে কাজী বশির মিলনায়তনে খেলাফত মজলিসের ৮ম সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে তিনি এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন।

মাওলানা ইসহাক বলেন, অচিরেই দেখবেন চরম আন্দোলন হবে। এই জালেম সরকার সরে যেতে বাধ্য হবে। ৫ জানুয়ারি ভোটাধিকার হরণ দিবস পালন করা হবে। সরকার যদি বাধা দেয় তবে লাগাতার কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে। তখন আর বিরতি দেওয়া হবে না।

মাওলানা ইসহাক বলেন, এই দেশ কারো জমিদারী নয়, কারো বাপের সম্পত্তি নয়। সরকারের উদ্দেশে তিনি বলেন, এমন আন্দোলন হবে পায়ের নিচের মাটি খুঁজে পাবেন না। আমি তৈরি আছি জীবন দেওয়ার জন্য।

সরকার ও পুলিশের সমালোচনা করে মাওলানা ইসহাক বলেন, দেশে আইন শৃঙ্খলা বলতে কিছু নেই। ছোট শিশুদের পর্যন্ত গুম করা হচ্ছে, আটকে রেখে মুক্তিপণ আদায় করা হচ্ছে। জনগণের টাকায় পরিচালিত হয় পুলিশ, তাদের ভূমিকা জনগণের সেবক হওয়ার কথা ছিল। অথচ নারায়ণগঞ্জে র‌্যাব টাকার বিনিময়ে মানুষ মেরেছে। অনেক মাদ্রাসায় গোয়েন্দা বাহিনী খোঁজ খবর নেয়।

খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেন, সমাজের সর্বস্তরে দুর্নীতিতে সয়লাব। এমন কোনো ক্ষেত্র নেই যে দুর্নীতি নেই। এই ফ্যাসিবাদী সরকার রাষ্ট্র পরিচালনায় ব্যর্থ। এই সরকার নৈতিকভাবে অবৈধ। তারা জনগণের ভোট নির্বাচিত নয়। দেশের মানুষ এ নির্বাচন মেনে নেয়নি। এ সরকারের অত্যাচারে আমাদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। এ অবস্থায় আমাদের সম্মিলিত আন্দোলন প্রয়োজন।

বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় গুলিস্তানস্থ কাজী বশির মিলনায়তনে অধিবেশন শুরু হবে। দলটির অফিস ও প্রচার সম্পাদক অধ্যাপক মো. আবদুল জলিল বলেন, 'দুর্নীতিমুক্ত সমাজ চাই, জনগণের সরকার চাই' এ শ্লোগানকে সামনে রেখে সারাদেশে তৃণমূলের দায়িত্বশীলদের নিয়ে এই অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন খেলাফত মজলিসের আমীর অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক। দলের মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদেরসহ কেন্দ্রীয় নেতারা বক্তব্য রাখেবেন।

সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে আরও উপস্থিত ছিলেন দলটির মহাসচিব আহমদ আবদুল কাদের, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা শফিকুর রহমান, অধ্যাপক এম কে জামান, জাহাঙ্গীর হোসাইন, অধ্যাপক আবদুল হালিম, মুহাম্মদ মুনতাসির আলী, শেখ আযহার, অফিস ও প্রচার সম্পাদক অধ্যাপক মো. আবদুল জলিল প্রমুখ।

/এসটিএস/টিএন/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।