রাত ০৮:১১ ; মঙ্গলবার ;  ১৬ জুলাই, ২০১৯  

পাল্টে ফেলুন নিজের ভবিষ্যত

প্রশিক্ষণ নিন

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

আসাদুজ্জামান লিমন।।

পত্রিকা খুললেই হয়ত আপনার চোখে পড়বে, 'টেলিভিশন পর্দায় নিজেকে দেখান' জাতীয় শিরোনামে নানা চটকদার বিজ্ঞাপন। এসব বিজ্ঞাপনের মূল লক্ষ্য হচ্ছে তরুণদের আকৃষ্ট করা। বিজ্ঞাপনদাতাদের কেউ মডেল বানান, কেউ নায়ক-নায়িকা বা অভিনয় শিল্পী আবার কেউ টেলিভিশন উপস্থাপন, রিপোর্টার, নিউজ প্রেজেন্টার। টেলিভিশনে নিজের চেহারাটা কোন তরুণই বা দেখাতে না চান। আর সেটাই যদি হয় চাকরি, মাস শেষে বেতন তবে তো সোনায় সোহাগা।

এসব কারণেই টেলিভিশন সাংবাদিকতা এখন অনেক তরুণের পছন্দের পেশা। কিন্তু চটকদার বিজ্ঞাপনদাতা কয়জনেরই বা এসব বিষয়ে প্রশিক্ষণ দানের মতো অভিজ্ঞ, দক্ষ, যোগ্য প্রশিক্ষক রয়েছেন! কিন্তু জাতীয় গণমাধ্যম ইনস্টিটিউট (নিমকো) এ ক্ষেত্রে দেশের একমাত্র সরকারি প্রতিষ্ঠান। এখানে রয়েছেন দেশের দক্ষ, অভিজ্ঞ সব প্রশিক্ষক। তারা কাউকে আশ্বাস দেন না বটে তবে তুমুল প্রতিযোগিতাপূর্ণ সাংবাদিকতার এই ক্ষেত্রটিতে কাজ করার জন্য একজন শিক্ষার্থীকে যোগ্য করে তোলেন। টেলিভিশন সাংবাদিকতায় ক্যামেরা হচ্ছে একটি অপরিহার্য বিষয়। কিন্তু ক্যামেরা পরিচালনায় চাহিদার তুলনায় দক্ষলোকের অভাব রয়েছে। তাই টেলিভিশন ক্যামেরা পরিচালনা ও আলোকসম্পাত শেখানোর একটি প্রশিক্ষণ শুরু করছে জাতীয় গণমাধ্যম ইনস্টিটিউট।

টেলিভিশন সাংবাদিকতায় যেমন চ্যালেঞ্জ রয়েছে তেমনি আছে পদে পদে রোমাঞ্চ। সৃজনশীলতার বিকাশ ঘটাতে প্রতিদিন সংবাদমাধ্যমে যুক্ত হচ্ছে নতুন কর্মী। সংবাদপত্রের চেয়ে সম্প্রচার সাংবাদিকতার কদর বেশি। অন্যদিকে বেতারের চেয়ে টেলিভিশন সংবাদ এগিয়ে আছে। কেননা, টেলিভিশনে সংবাদ কাহিনি প্রচারের ক্ষেত্রে তথ্য পরিবেশনের পাশাপাশি ঘটনার ভিডিও প্রচারিত হয়। এই মাধ্যমে ভিডিও ফুটেজের উপর ভিত্তি করেই সংবাদ কাহিনি তৈরি করা হয়। তাই টেলিভিশনে দক্ষ ক্যামেরা পারসনদের চাহিদা সব সময় থাকে। অন্যদিকে একজন টেলিভিশন সাংবাদিককেও ক্যামেরা সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকতে হয়। তরুণদের অনেকেই টেলিভিশন ক্যামেরা পরিচালনাকে পেশা হিসেবে নিতে আগ্রহী। কিন্তু উপযুক্ত প্রশিক্ষণ ও দিকনির্দেশনার অভাবে কাজের সুযোগ মিলছে না। টেলিভিশন ক্যামেরায় পরিচালনায় দক্ষ জনবল তৈরি করতে প্রশিক্ষণের আয়োজন করেছে জাতীয় গণমাধ্যম ইনস্টিটিউট (নিমকো) । এ প্রশিক্ষণে টেলিভিশন ক্যামেরা পরিচালনা ও আলোকসম্পাত হাতে কলমে শেখানো হবে।

ছয় সপ্তাহব্যাপী এই প্রশিক্ষণ চলবে ২৮ ডিসেম্বর থেকে ০৫ ফেব্রুয়ারি পযন্ত। টেলিভিশন ক্যামেরার ইতিহাস, প্রকারভেদ, লেন্সের ব্যবহার, ফ্রেম, অ্যাঙ্গেল, আইরিস, শার্টার স্প্রিড, অ্যাপার্চার, আইএসওসহ অন্যান্য কারিগরি বিষয় নিয়ে প্রশিক্ষণটি সাজানো হয়েছে। ক্যামেরায় ভিডিও ধারণের জন্য আলোকসম্পাত সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকতে হয়। আলোর ব্যবহার করে কিভাবে ভালো মানের তথ্যচিত্র তৈরি করা যায় তা এই কোর্সে শেখানে হবে। এছাড়া, ক্যামেরায় শব্দ ধারণের জন্য মাইক্রোফোনের ব্যবহার সম্পর্কেও প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

নিমকো থেকে টেলিভিশন ক্যামেরার প্রশিক্ষণ নিয়েছেন মেহেদী হাসান। তিনি এখন একটি বেসরকারি টেলিভিশনে কাজ করছেন। তিনি জানান, টেলিভিশন ক্যামেরা পরিচালনা করার জন্য প্রশিক্ষণ থাকলে কাজের ক্ষেত্রে সুবিধা হয়। এতে করে প্রতিযোগিতায় অন্যদের থেকে এগিয়ে থাকা যায়। ক্যামেরায় প্রশিক্ষিতরা অনায়াসেই চাকরির সুযোগ পায়।

প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকাল পাঁচটা পযন্ত ক্লাশ চলবে। সাপ্তাহিক বন্ধ শুক্র ও শনিবার। টেলিভিশন ক্যামেরায় হাতেখড়ি দেওয়ার জন্য নিমকোর একদল দক্ষ ক্যামেরা পার্সন রয়েছেন। তাঁরা এই কোর্সে প্রশিক্ষক হিসেবে থাকছে। এছাড়া দেশের খ্যাতনাম চিত্রগ্রাহকরাও কোর্সে প্রশিক্ষক হিসেবে নবীনদের মাঝে তাঁদের অভিজ্ঞতা বিনিময় করবেন।

টেলিভিশন ক্যামেরা ও আলোকসম্পাত প্রশিক্ষণ কোর্সের আসন সংখ্যা ২০। তবে আবেদনকারীদের সংখ্যা কম কিংবা বেশি হলে আসন সংখ্যা কমানো-বাড়ানো হবে। যারা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক কিংবা স্নাতকোত্তর শেষ করেছেন তারাই এই কোর্সে ভর্তির সুযোগ পাবেন। সরকারি কিংবা বেসরকারি টেলিভিশনে যারা ক্যামেরায় কাজ করেন তাদের জন্য শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিলযোগ্য। নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে তাদের প্রশিক্ষণে অংশ নেয়ার জন্য যোগাযোগ করতে হবে।

৩০ দিনব্যাপী এই কোর্সের ফি নয় হাজার টাকা মাত্র। পুরো টাকা ভর্তির সময় এককালীন দিতে হবে। আবেদনপত্র ২১ ডিসেম্বরের মধ্যে সংগ্রহ ও জমা দেয়া যাবে। ইনস্টিটিটিউটের ওয়েব সাইট থেকেও আবেদনপত্র সংগ্রহ করা যাবে। আবেদনপত্র জমা দেয়ার ফি দুইশত টাকা। আবেদনপত্র যাচাই বাছাই শেষে ২২ ডিসেম্বর সকাল দশটায় সাক্ষাৎকার নেয়া হবে। সাক্ষাৎকারে উত্তীর্ণ প্রার্থীরা চূড়ান্ত ভর্তির জন্য মনোনীত হবেন।

টেলিভিশনে সংবাদ কিংবা অনুষ্ঠান ধারণের জন্য নেপথ্যের নায়ক ক্যামেরাপার্সন। যাদের নিরলস প্রচেষ্টায় একটি সুন্দর তথ্যচিত্র দর্শক-শ্রোতারা উপভোগ করেন। আপনি যদি পর্দার পেছনের রূপকার হতে চান তবে এই প্রশিক্ষণ কোর্সে অংশ নিয়ে পাল্টে ফেলুন আপনার ভবিষ্যত।

যোগাযোগ
জাতীয় গণমাধ্যম ইনস্টিটিউট
১২৫/এ, ডব্লিউ চৌধুরী রোড, দারুস সালাম, ঢাকা।
ফোন: ৮০৩১০৬০
ওয়েবসাইট: www.nimco.gov.bd

এমবিআর

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।