রাত ১১:১৭ ; বৃহস্পতিবার ;  ১৮ এপ্রিল, ২০১৯  

নতুন বিষয়ে পড়াশোনা

আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ

প্রকাশিত:

দেবশ্রী ভৌমিক।।

নতুন বিষয়, নতুন আগ্রহ। এইভাবেই হয়তো নতুন বিষয়ের জন্ম থেকে শুরু হয়। কিন্তু কখনো মৃত্যু হয় না হয় শুধু পরিনতি। নতুন সময়ে নতুন বিষয় যেমন জাগাতে পারে নতুন উন্মাদনা তেমনি জাগাতে পারে নতুন বিস্ময় । তেমনি কিছু নতুন বিষয়ের তথ্য তুলে আনা হয়েছে এখানে।

১. সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং

সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং আবার কেমন বিষয়। সফটওয়্যার নিয়ে আবার পড়াশোনা করা লাগে নাকি। কম্পিউটারে সফটওয়্যার নিয়ে একটু গুতাগুতি করলেই তো হয়। না তা নয়। সফটওয়্যার নিয়ে পড়াশুনা করা হয়। কম্পিউটার থেকে শুরু করে মোবাইল, ট্যাব সব জায়গায় দরকার হয় সফটওয়্যার । সেই সফটওয়্যার বিষয়েই পড়ানো হচ্ছে আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ।

স্প্রিং , সামার এবং ফল ৩ তা সেমিস্টারে ভর্তি নেয়া হয়।এ ই বিষয়ে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর করা যায়। মোট ১৩০ ক্রেডিট পড়ানো হয় ৮ সেমিস্টারে। মোট ৬০হাজার টাকা খরচ হবে ভর্তি হতে এই বিষয়ে।

ভর্তির যোগ্যতা

এইচ এস সি পাস করার পর এই বিভাগে পরীক্ষা দেয়ার মাধ্যমে ভর্তির সুযোগ পেতে হবে। এইচএসসিতে ন্যূনতম জি পি এ ৩.৫ থাকতে হবে।

২. এগ্রি বিজনেস

এগ্রি বা এগ্রিকালচার নিয়ে বিজনেস করা শিখতে হবে। এই কথা যে শুনবে সেই হয়ত বলবে, কৃষি কাজ নিয়ে কি ব্যবসা করব। আমরা ছোটকাল থেকেই জেনে এসেছি কৃষি ও ব্যবসা সম্পূর্ণ আলাদা পেশা। কিন্তু সময় বদলেছে। কৃষি কাজকেও কিভাবে ব্যবসায় সম্প্রসারিত করা যায় সে শিক্ষাটাই দেয়া হয় এগ্রি বিজনেস বিভাগে।

আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ নামক প্রাইভেট ইউনিভার্সিটিতে এই বিষয়ে এমবিএ করা যায়।

এই বিষয়ে এম বি এ করতে চাইলে অবশ্যই স্নাতক পাস হতে হবে। মোট ৫৫ ক্রেডিটে পড়ানো হয় এই বিষয়ে। পড়তে মোট ৪০ হাজার টাকা খরচ পড়বে।

ভর্তির যোগ্যতা

এই বিষয়ে পড়তে হলে অবশ্যই স্নাতকে সিজিপিএ ২.৫ এর উপরে থাকা আবশ্যক।

এই তো গেল আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশের নতুন বিষয়গুলোর কথা। এই বিশ্ববিদ্যালয়টি বাংলাদেশের প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়দের মধ্যে অন্যতম। অনেক প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে এটিও থাকতে পারে শিক্ষার্থীর পছন্দের তালিকায়।

এমবিআর

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।