সকাল ০৯:৩৫ ; সোমবার ;  ২৩ জুলাই, ২০১৮  

কী থাকছে ফেসবুকের নতুন শর্তে?

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

আরশাদ আলী॥

সম্প্রতি ফেসুবক ব্যবহারকারীরা তাদের নোটিফিকেশন বক্সে একটা 'নোটিশ' পাচ্ছেন ফেসবুক কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে। এতে বলা হচ্ছে, ২০১৫ সালের পয়লা জানুয়ারি থেকে ফেসবুক ব্যবহারে নতুন নীতিমালা কার্যকর হবে।

নোটিশটিতে নতুন নীতিমালার লিংক দেওয়া আছে। ফেসবুক ব্যবহার করতে হলে এ নীতিমালা মেনেই করতে হবে।

ফেসবুকসহ অন্যান্য ক্ষেত্রে অনেক ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা চোখ বুজে এধরনের নীতিমালার শর্তাবলীতে একমত হয়ে যান। শর্তাবলীগুলোর আইনীভাষা এবং দীর্ঘ হওয়ায় বেশিরভাগই তা পড়ে দেখেন না। ফেসবুকের নতুন নীতিমালাও হয়ত অনেকেই পড়ে দেখবে না

কিন্তু ফেসবুক হঠাৎ করে কেন নতুন নীতিমালা হালনাগাদ করছে? কিংবা কী আছে ১৫০ পৃষ্ঠার নতুন নীতিমালায় যা আগে ছিল না? ফেসবুক ব্যবহারকারী হি‌‌সেবে উদ্বিগ্ন হওয়ার মত কী কিছু আছে এতে?

ফেসবুকের নতুন শর্তাবলী অধ্যয়ন করে ইন্টারনেট ও আইন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এর লক্ষ্য হচ্ছে সুনির্দিষ্ট বিজ্ঞাপনের মাত্রা বাড়ানো। ফেসবুককে সক্রিয় থাকতে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে আয় করতে হয়। এখন ফেসবুক গুগলের সঙ্গেও কাজ করছে। উভয়ই স্থানীয়ভাবে বিজ্ঞাপন ব্যবস্থাকে আরও কার্যকর করতে উদ্যোগ নিয়েছে। এতে উভয়ই গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন নিয়ে এসেছে।

বিগত বছরে ফেসবুকে নতুন ফিচার এবং কন্ট্রোল সিস্টেম আনা হয়েছিল। ফেসবুকের প্রধান গ্লোবাল প্রাইভেসি অফিসার এরিন এগান বলেন, হালনাগাদের ফলে ব্যবহারকারীর অভিজ্ঞতা আরও ভালো হবে এবং ব্যবহারকারীর তথ্য সংরক্ষণের ক্ষেত্রে গোপনীয়তা রক্ষা করা হবে।

নতুন নীতিমালার 'প্রাইভেসি বেসিকস' পাতায় কীভাবে ফেসবুক ব্যবহারকারী নিজের তথ্য নিয়ন্ত্রণ করতে পারে সে বিষয়ে বলা হয়েছে।

নতুন নীতিমালায় ফেসবুক ব্যবহারকারীদের অবস্থান চিহ্নিত করে স্থানীয় বিজ্ঞাপনগুলো ফেসবুক ওয়ালে প্রদর্শন করা হবে। এতে করে ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দাতার সংখ্যা বাড়বে।

নতুন নীতিমালা অনুসারে ফেসবুক ব্যবহারকারীর অবস্থান চিহ্নিত করতে পারবে। নতুন নীতিমালার 'লোকেশন ডাটা পলিসি'তে বলা হয়েছে ওয়াইফাই, জিপিএস এবং ব্লু টুথ ডাটা ব্যবহার করার সময় ফেসবুক ব্যবহারকারীর অবস্থান চিহ্নিত করতে পারবে।

নতুন নীতিমালা অনুসারে ফেসবুক ব্যবহারকারীর অবস্থান চিহ্নিত করতে পারবে এবং লগইন অবস্থায় কেউ যেসব সাইট ভিজিট করবে তার সব তথ্য ফেসবুকের কাছে জমা থাকবে

ফেসবুকে স্ট্যাটাস, ছবি, ভিডিও যা-ই শেয়ার করা হোক না কেন তার প্রাইভেসি আপনি ঠিক করে দিতে পারেন। কারা আপনার শেয়ার করা বিষয়গুলো দেখতে পারবে। কিন্তু ফেসবুক জিপিএস ব্যবহার করে স্মার্টফোনের মাধ্যমে আপনার অবস্থান সব সময় জানতে পারবে এবং আপনার অবস্থান অনুযায়ী বিজ্ঞাপন দেখাবে।

এটা বন্ধ করার কিন্তু কোনও উপায় নাই। যদি আপনি নিজের অবস্থান প্রকাশ করতে না চান তাহলে আপনাকে ফেসবুক ব্যবহার বন্ধ করতে হবে। অথবা স্মার্টফোন থেকে ফেসবুক অ্যাপস আনইন্সটল করে ফেলতে হবে এবং শুধু ডেস্কটপ বা ল্যাপটপ থেকে ফেসবুক ব্যবহার করতে হবে।

নতুন এই নীতিমালা অনুসারে আপনার স্মার্টফোনের অবস্থান, ব্যাটারি এবং সিগনালের ক্ষমতাও জানতে পারবে ফেসবুক।

ফেসবুকের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, মানুষের তথ্যের নিরাপত্তা এবং গোপনীয়তার নিশ্চয়তা দেওয়াই আমাদের মূল কাজ। আমরা মনে করি এ ঘোষণা একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ।

এছাড়া লগইন অবস্থায় কেউ যেসব সাইট ভিজিট করবে তার সব তথ্য ফেসবুকের কাছে জমা থাকবে।

এ বিষয়ে ফেসবুক বলছে, 'শুধু কার্যকর সেবা দিতে যেমন, আপনার জিপিএস অবস্থান নির্ণয় করে সংশ্লিষ্ট নোটিফিকেশন দিতে আমরা এসব তথ্য ব্যবহার করব।'

এদিকে, ফেসবুকের বিজ্ঞাপনেও আসছে আমূল পরিবর্তন। গার্ডিয়ানের একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফেসবুক ভিডিও বিজ্ঞাপন চালু করতে যাচ্ছে। ফেসবুক ডেভলপারদের একটি ব্লগ পোস্টের উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, নিউজ ফিডে ভিডিও বিজ্ঞাপনগুলো স্বয়ংক্রিয়ভাবেই চালু হবে ফেসবুকে লগইন করার সঙ্গে সঙ্গেই।

/এইচএএইচ/


 


 

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।