রাত ১১:১৮ ; বৃহস্পতিবার ;  ১৮ এপ্রিল, ২০১৯  

বিনা পয়সায় বিদেশি বই দিচ্ছেন

হাউজ অফ ভলান্টিয়ার্স

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

দেবশ্রী ভৌমিক।।

ঢাকা ইউনিভার্সিটি, বুয়েট, আহসানুল্লাহ ইউনিভার্সিটি এবং ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা এক বাক্যে হাউজ অফ ভলান্টিয়ার্স-এর নাম জানেন। হাউস অফ ভলান্টিয়ার্সের কর্মকাণ্ড ক্যাম্পাসে সক্রিয় আর আট-দশটা সংগঠনের মতো না। বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক সংগঠন আর্থিক সমৃদ্ধির জন্য কাজ করে থাকে। কিন্তু হাউস অফ ভলান্টিয়ার্স সম্পূর্ণ অলাভজনকভাবে সেবামূলক কাজ করে।

২০০৭ সালে ম্যসাচুএট-এর কিছু তরুণ প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগ নেন। তাদের হাত ধরেই ২০০৭ সালে বাংলাদেশে এই প্রতিষ্ঠানের জন্ম হয়।

মুহাম্মদ আহসানউল্লাহ খান ফয়সাল বর্তমানে এই সংগঠনের প্রধান। এই সংগঠনের সাথে যুক্ত আছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বুয়েটসহ আরও কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীগণ।

হাউস অফ ভলান্টিয়ার্স নিজেদেরকে কখনো গ্রুপ বা দল বলতে নারাজ। তারা নিজেদের সংস্থা বলে থাকেন। এই সংস্থাটি বর্তমানে ৩ টি প্রজেক্ট হাতে নিয়েছেন। ৩ টির কাজই দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে।

প্রজেক্ট ৩ টি হল ওপেন সোর্স কম্পিউটার এডুকেশন প্রজেক্ট, আর্থকোয়াক এওয়ারনেস প্রোগ্রাম এবং বুক ড্রাইভ।

ওপেন সোর্স কম্পিউটার এডুকেশন প্রজেক্টের কাজ হল অনগ্রসর স্কুলগুলোতে কম্পিউটারের ব্যবহার এবং কম্পিউটারের মাধ্যমে কিভাবে আয় করা যায় তার সম্পর্কে ধারণা দেয়া। বর্তমানে সিলেট এবং কুমিল্লাতে এই প্রজেক্টের কাজ চলছে।

এই ক্লাবের একটি অন্যতম প্রজেক্ট হল ভূমিকম্প সম্পর্কে সচেতনতা। হাউজ অফ ভলান্টিয়ার্সের কর্মীগণ বিভিন্ন স্কুলে গিয়ে ভূমিকম্পের বিষয়ে শিক্ষার্থীদের সচেতন করছেন। মোট ১৮৭ জন স্বেচ্ছাসেবী ১২টি স্কুলে এই প্রচারণা অভিযান সম্পন্ন করেছেন। বেশিরভাগ স্কুল ছিল পুরান ঢাকার। ঢাকায় ভূমিকম্প হলে সবচেয়ে বিপদাপন্ন স্থানটি হতে পারে পুরান ঢাকা।

'বুক ড্রাইভ'-এর প্রধান কাজ হল দুষ্প্রাপ্য বিদেশি বই দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের বিশ্ববিদ্যালয় বা কলেজগুলোতে পৌঁছে দেয়া। হাউস অফ ভলান্টিয়ার্সের দক্ষ কর্মীগণ আমেরিকা থেকে বই সংগ্রহ করে বাংলাদেশের ২০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে পৌঁছে দিয়েছেন। এযাবত তারা প্রায় ১০ হাজার বই সংগ্রহ করেছেন এবং দেশের বিভিন্ন প্রান্তে পৌঁছে দিয়েছেন।

যে কেউ-ই এই সংগঠনের সাথে কাজ করতে পারেন। বিভিন্ন ভাবে যুক্ত হতে পারেন এই সেবামূলক কাজের সাথে। এখানে কাজ করলে যেমন নিজের অভিজ্ঞতা বাড়বে, তেমনই বাড়বে মনের প্রসার।

হাউজ অফ ভলান্টিয়ার্সের ওয়েব: www.houseofvolunteers.org

/এমবিআর/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।