রাত ০৮:০৮ ; রবিবার ;  ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯  

মধ্যপ্রাচ্যে বাংলাদেশি গৃহকর্মীদের অধিকার বাড়ল

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বাংলা ট্রিবিউন ডেস্ক॥

বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের নারী গৃহকর্মীদের বেশ কিছু বিষয়ে অধিকার দিতে সম্মত হয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের কয়েকটি দেশ। কুয়েতে অনুষ্ঠিত মধ্যপ্রাচের ৬টি দেশ (জিসিসি) এবং দেশগুলোতে জনশক্তি রফতানিকারক ১২টি দেশের সম্মেলনে এ বিষয়ে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন সম্মেলনে বাংলাদেশের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন। বুধবার ও বৃহস্পতিবার দুই দিন ব্যাপী এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে অংশ নেওয়া মধ্যপ্রাচের ছয়টি দেশের মধ্যে রয়েছে বাহরাইন, কুয়েত, ওমান, কাতার, সৌদি আরব এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত।

সম্মেলনে স্বাক্ষরিত চুক্তি অনুসারে, এখন থেকে মধ্যপ্রাচ্যে কর্মরত নারী গৃহশ্রমিকরা সাপ্তাহিক ও বার্ষিক ছুটি, আট ঘণ্টা কাজের সময়, চাকরির নিশ্চয়তা, কর্মস্থল পরিবর্তন এবং ওভারটাইমের সুবিধা পাবেন।

নতুন এ চুক্তি অনুসারে কোনও নিয়োগকর্তা কারও পাসপোর্ট জব্দও করতে পারবে না। এছাড়াও নতুন এ চুক্তি অনুসারে গৃহকর্মীদের দিনে সর্বোচ্চ দুই ঘণ্টা ওভারটাইম করাতে পারবে নিয়োগকর্তারা।

কুয়েতের জনশক্তি মন্ত্রণালয়ের পরিচালক জামাল আল দোসারি বার্তা সংস্থা এএফপিকে বৈঠকে চুক্তি স্বাক্ষরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, জিসিসি দেশের মন্ত্রীরা চুক্তিটি অনুমোদন করেছেন। যদিও কয়েকটি দেশের মন্ত্রীরা দাবি করেছেন, তাদের দেশে শ্রমিকদের পরিবেশ ভালো আছে। তবে মন্ত্রীরা নিশ্চয়তা দিয়েছেন এতে করে শ্রমিকদের ন্যূনতম অধিকার নিশ্চিত হবে।

মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতেই বাংলাদেশ থেকে সবচেয়ে বেশি শ্রমিক পাঠানো হয়। এদের বড় একটি অংশই নারী। তাদের ওপর নিয়োগকর্তা কর্তৃক যৌন হয়রানি, মারধর আর জোর করে আটকে রাখার মতো নির্যাতন করার অভিযোগ রয়েছে।

সাম্প্রতিক সময়ে গৃহকর্মী নির্যাতনের ঘটনায় এসব দেশের ওপর একপ্রকার আন্তর্জাতিক চাপ তৈরি হয়েছে। তাই এসব দেশ এখন অভিন্ন নীতিমালায় বিদেশি শ্রমিকদের অধিকার রক্ষার ওপর জোর দিচ্ছে বলে মনে করেন দূতাবাস সংশ্লিষ্টরা। সূত্র: আরব টাইমস।

/এএ/একে/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।