বিকাল ০৪:৩১ ; মঙ্গলবার ;  ২৩ এপ্রিল, ২০১৯  

গৃহস্থালি কাজ সহজ করতে ওয়ালটনের ৩৪ পণ্য

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন ডেস্ক॥

ব্যস্ত জীবনে ঘর গৃহস্থালি কাজ সামলানো খুব সহজ নয়। কাজটি সহজ এবং সংসার অারও সুখময় করতে ওয়ালটন বাজারে এনেছে ৩৪ ধরনের গৃহস্থালি পণ্য। এসব পণ্য উৎপাদন ও বিক্রির ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে দেশের অন্যতম ইলেক্ট্রনিক্স, অটোমোবাইলস ও হোম অ্যাপ্লায়েন্স প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন।

শীত সামনে রেখে রুম হিটার, ইলেক্ট্রিক কেটলি, ওভেন, ইন্ডাকশন কুকার, মাইক্রোওয়েভ ওভেন, ওয়াশিং মেশিন ইত্যাদি পণ্যের বিক্রি এমনিতেই বেড়ে যায়। এজন্য এয়ার ফ্রাইয়ার কুকার নামে একটি নতুন প্রযুক্তি শিগগিরই বাজারে আনছে ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ। এতে রান্না করতে আলাদাভাবে তেলের প্রয়োজন হয় না। ৮০ ভাগ চর্বিমুক্ত রান্না করতে সক্ষম এবং রান্না হয় খুব দ্রুত।

এ ব্র্যান্ডের অন্যান্য হোম অ্যাপ্লায়েন্সের মধ্যে রয়েছে- এয়ারকুলার, অটোমেটিক ভোল্টেজ স্টাবিলাইজার, কারি মাল্টি কুকার, ডিভিডি প্লেয়ার, ইলেক্ট্রিক ক্লথ ড্রাইয়ার, ব্লেন্ডার, ইলেক্ট্রিক কেটলি, ইলেক্ট্রিক প্রেসার কুকার, ফ্যান, ফুড প্রসেসর, গ্যাস স্টোভ, ডমেস্টিক জেনারেটর, হেয়ার ড্রায়ার, হেয়ার স্ট্রেটনার, আইপিএস, আয়রন, জুসার, কিচেন কুকওয়্যার, এলইডি বাল্ব, মিক্সার, মপ (এমওপি), ওভেন, রাইস কুকার, সালাদ মেকার, স্যান্ডউইচ মেকার, স্যুয়িং মেশিন, টোস্টার, ভ্যাকুয়াম ফ্লাস্ক, ওয়াটার ডিসপেনসার ও ওয়েট মেশিন।

জানা গেছে, গৃহস্থালি এসব পণ্যের চাহিদা দেশে দিন দিন বাড়ছে। জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন এবং দ্রুত ঘরের খুঁটিনাটি কাজ শেষ করতে এসব পণ্যের জুড়ি নেই। এতোদিন বিদেশ থেকে আমদানি করে গৃহস্থালি পণ্যের চাহিদা মেটানো হতো। ফলে ক্রেতাদের যেমন বাড়তি পয়সা গুণতে হতো, তেমনি আমদানিবাবদ দেশ থেকে বিপুল অঙ্কের অর্থ বিদেশে চলে যেত। এরইমধ্যে ওয়ালটন হোম অ্যাপ্লায়েন্স পণ্য উৎপাদনের প্রস্তুতি নিয়েছে।

ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ মনে করছে, গৃহস্থালি পণ্য উৎপাদনের মাধ্যমে বাংলাদেশ আরো একধাপ এগিয়ে যাবে। ইতোমধ্যে ফ্রিজ, মোটরসাইকেল এবং টেলিভিশন উৎপাদনে দেশ স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে। দেশের চাহিদা মিটিয়ে বর্তমান এসব পণ্য বিদেশে রফতানি করা হচ্ছে। ঠিক একইভাবে, গৃহস্থালি পণ্য উৎপাদন ও বিপণনের মাধ্যমে দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশেও রফতানি করা সম্ভব হবে।

কোম্পানির সোর্সিং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী পরিচালক মাসুদুর রহমান বলেন, গৃহস্থালি পণ্যের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে বাংলাদেশে। কিন্তু পুরোটাই আমদানি নির্ভর। এসব পণ্যের গুণগত মান নিয়েও যথেষ্ট বিতর্ক রয়েছে। আর এ কারণে আমদানি নয়, এবার ওয়ালটনের নিজস্ব কারখানায় উৎপাদন হবে এসব পণ্য। এর ফলে ক্রেতারা সাশ্রয়ী মূল্যে উচ্চমানের পণ্য কেনার সুযোগ পাবেন।

ওয়ালটনের অপারেটিভ ডিরেক্টর উদয় হাকিম জানান, গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটন মাইক্রোটেক কর্পোরেশনে হোম অ্যাপ্লায়েন্স তৈরির জন্য কারখানা নির্মাণকাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। নিয়োগ করা হয়েছে বিশেষজ্ঞ প্রকৌশলীসহ সুদক্ষ কর্মীবাহিনী। এর জন্য রয়েছে আলাদা গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগ।

/এএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।