সকাল ০৯:৪৪ ; মঙ্গলবার ;  ২৩ জুলাই, ২০১৯  

হে তরুণ, রক্ষা করুন মাথার চুল

প্রকাশিত:

নাসিমুল শুভ

মাত্রাতিরিক্ত চুল পড়া থেকে ধীরে ধীরে মাথায় মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে টাক ! পুরুষদের অনেককেই টাক সমস্যায় পড়তে হয় । 'আগে দর্শনধারী' ব্যবস্থায় টাক নিয়ে জটিলতা বলে শেষ করবার নয়! টাক বেশ শঙ্কারও বটে। তবে প্রাথমিক পর্যায়ে একটু খেয়াল রাখলে আপনার মধ্যে লুকিয়ে থাকা পিট বুল, জ্যাসন স্ট্যাথাম কিংবা ভিন ডিজেল এখনি আপনাকে ছাপিয়ে উঠবে না। এমন ভরসা আপনি করতেই পারেন। কিছু বিষয় মাথায় রাখলে আপনাকে হয়তো সহসাই মাথা কামাতে হবে না।

এসব কথা টাক সমাধানের সস্তা বিজ্ঞাপন নয় । চুলের সঠিক কাট- ছাঁট আর অনুষঙ্গ ব্যবহারে দিব্যি থাকতে পারবেন ফিটফাট! এ জন্য হতে হবে একটু সচেতন । তাহলেই হেয়ার ট্রান্সপ্ল্যান্টের মত ঝক্কিঝামেলা পোহাতে হবে না। খরচও যাবে বেঁচে। আসুন কিছু পরামর্শ দেখে নেয়া যাক:

চুল ছোটো করে কাটুন। না, আপনাকে এখনি ন্যাড়া হওয়ার পরামর্শ দিচ্ছে না কেউ। টাক সমস্যায় সবে পড়েছেন এমন ব্যক্তিরা চুলের ছাঁটে আনতে পারেন পরিবর্তন। পুরো মাথায় সমান চুল এই ফ্যাশনে না গিয়ে চারপাশের চুল ছোট করে ছেঁটে ওপরের দিকে একটু বড় রাখতে পারেন। এতে ওপরের চুল বেশ ঘন দেখাবে।

কাটছাঁটের পরও টেকো ভাব দূর করতে বেছে নিতে পারেন নানা হেয়ার প্রোডাক্ট। এতে টাক সমস্যার কিছুটা উপশম হবে আর কমপুষ্ট চুলে জুটবে বাড়তি যত্ন। তবে এসব পণ্যের ব্যবহারে বিশেষজ্ঞরা সাবধান থাকতে বলেন।হেয়ার প্রোডাক্ট হওয়া চাই তেলমুক্ত বা অয়েল ফ্রি। যা ব্যবহারে মাথার ত্বকে অবাঞ্ছিত তেল তেলে ভাব থাকে না। ত্বক থাকে খুশকি মুক্ত, পরিষ্কার। বিশেষজ্ঞরা প্রাকৃতিক উপাদানেই বেশি আস্থা রাখার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। যেকোনও হেয়ার ট্রিটমেন্ট, প্রোডাক্ট হারবাল বা ভেষজ হলেই সবুজ সংকেত দেন তারা ।

' মাত্র ১ ঘণ্টায় টাক সারানো হয় ' গোছের বিজ্ঞাপনেই কেবল রাতারাতি টাক সমস্যা সমাধানের কথা বলা হয়। যা বাস্তবে সম্ভব নয়। তবে একটি ভালো গ্রুমিং রুটিন মেনে চললে টাক নিয়ন্ত্রণে থাকে।

/এফএএন/


 


 

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।