সকাল ০৯:৩৮ ; সোমবার ;  ২৩ জুলাই, ২০১৮  

'এক এশিয়া'র প্রত্যয়ে অ্যাসোসিও সামিটের সমাপ্তি, পরের সম্মেলন মালয়েশিয়ায়

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

হিটলার এ. হালিম, ভিয়েতনাম থেকে॥ হ্যানয় ঘোষণার মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকতা শেষ হলো ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়ে অনুষ্ঠেয় ‘ভিয়েতনাম-অ্যাসোসিও আইসিটি সামিট-২০১৪’। ঘোষণায় জানানো হয়েছে ২০১৫ সালের অ্যাসোসিও সামিট অনুষ্ঠিত হবে মালয়েশিয়ায়। গতকাল বৃহস্পতিবার অ্যাসোসিও চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল ভিয়েতনামের পার্লামেন্টের প্রেসিডেন্ট (স্পিকার)-এর সঙ্গে দেখা করেন। সামিটের প্রাপ্তি, দ্রুত বর্ধনশীল দেশ হিসেবে ভিয়েতনামের উঠে আসাসহ একাধিক বিষয় নিয়ে প্রতিনিধি দল সংসদের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আলোচনা করেন। জানা গেছে, এবারের সামিটে ৯৭টি সেমিনার ও কমর্শালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠিত হয়েছে বিজনেস ম্যাচমেকিং এবং তথ্যপ্রযুক্তি পণ্য এবং সেবার প্রদর্শনী। এ ছাড়াও ছিল বিভিন্ন দেশের তথ্যপ্রযুক্তির উন্নতি এবং অবস্থান নিয়ে মাল্টিমিডিয়া উপস্থাপনা। সন্ধ্যায় ছিল হ্যানয়ের অ্যাকুইয়ারা রেস্তরাঁর জাপানের আইসিটি ডে উপলক্ষে নেটওয়ার্কিং ডিনার। ওই অনুষ্ঠানে সম্মেলনে অংশ নেওয়া ২১টি দেশের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে নৈশভোজের শেষে ছিল জাপানের শিল্পীদের মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। অনুষ্ঠানে আগতরা 'এক এশিয়া' গড়তে এবং কৃষিতে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহারের ওপর আবারও গুরুত্বারোপ করেন। সামিট বিষয়ে অ্যাসোসিও চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ এইচ কাফি বললেন, এই সামিট থেকেও বাংলাদেশের প্রাপ্তি রয়েছে। বাংলাদেশ যদি ভিয়েতনামকে অনুসরণ করে তাহলে আমাদের দেশটিও দ্রুত এগিয়ে যাবে। তিনি বলেন, ১৯৭৫ সালে দেশটি যখন স্বাধীন হয় তখন ভিয়েতনামের মানুষের মাথাপিছু আয় ছিল ৪০০ ডলার। আর এখন তা ২ হাজার ডলার ছাড়িয়ে গেছে। আমরা অনেক পেছনে রয়েছি। ভিয়েতনামের মানুষের প্রধান জীবিকা কৃষি উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশটির মোট জনসংখ্যার (প্রায় ১০ কোটি) ৭২ শতাংশ কৃষিজীবী। দেশটির সরকার প্রত্যেক কৃষককে একটি করে ট্যাব দেওয়ার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে তারা কৃষিতে বিপ্লব ঘটিয়ে ফেলবে বলে মনে করছে দেশটির সরকার। associo summit tech2 আজ শুক্রবার হো চি মিন সিটিতে দেশটির প্রেসিডেন্ট ট্রুঅং তান সাংয়ের সঙ্গে অ্যাসোসিও প্রতিনিধি দল সাক্ষাৎ করবেন বলে জানা গেছে। এরপর প্রতিনিধি দল প্রেসিডেন্ট প্যালেস ঘুরে দেখবেন। আর এর মধ্যে দিয়েই শেষ হবে অ্যাসোসিও সামিট-২০১৪। প্রসঙ্গত, এটি অ্যাসোসিওর ৩১তম সম্মেলন। ভিয়েতনামে এই সম্মেলন দ্বিতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হলো। অ্যাসোসিওর সদস্য দেশগুলো হলো বাংলাদেশ, অস্ট্রেলিয়া, কম্বোডিয়া, তাইপে, হংকং, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, জাপান, কোরিয়া, লাওস, ম্যাকাউ, মালয়েশিয়া, মঙ্গোলিয়া, মায়ানমার, নেপাল, পাকিস্তান, ফিলিপাইন, শ্রীলংকা, থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম, সিঙ্গাপুর ও ভুটান। ভুটান অ্যাসোসিওর নতুন সদস্য হিসেবে এবারই প্রথম সম্মেলনে অংশ নিচ্ছে। এছাড়াও সম্মেলনে পর্যবেক্ষক হিসেবে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য, স্পেন ও কানাডা। /এইচএএইচ/এফএ

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।