রাত ০৯:৫৫ ; সোমবার ;  ২২ জুলাই, ২০১৯  

'খাদ্য ঘাটতি নেই, তবে অনিরাপদ খাবারের কারণে জনস্বাস্থ্য হুমকির মুখে'

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট॥ দেশে খাদ্য ঘাটতি না থাকলেও অনিরাপদ খাবারের জন্য আমাদের জনস্বাস্থ্য আজ হুমকির মুখে। অতিমুনাফালোভী ভেজালকারীদের মতো খাদ্য উৎপাদন প্রক্রিয়ায় অতিরিক্ত ক্ষতিকর রাসায়নিক সার ও কীটনাশক ব্যবহারকারীরাও দেশের তাবৎ খাদ্যপণ্যকে ঝুঁকিপূর্ণ করে তুলছে। এ অরাজক ব্যবস্থা জীববৈচিত্র ও পরিবেশেরও ক্ষতি করছে। এই অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেতে দেশে জৈব কৃষি ব্যবস্থার প্রচলন ও একে জনপ্রিয় করে তোলা জরুরি। যা মানবস্বাস্থ্য, পরিবেশ ও জীববৈচিত্রকেও রক্ষা করবে। জৈব কৃষি ব্যবস্থাকে জনপ্রিয় করতে কৃষক, বিক্রেতা ও ভোক্তাদের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে। ভলান্টারি কনজুমারস ট্রেনিং অ্যান্ড অ্যাওয়ারনেস সোসাইটি (ভোক্তা) আয়োজিত 'জৈব খাদ্য : ভোক্তার স্বাস্থ্য, জীববৈচিত্র এবং পরিবেশ' শীর্ষক এক সেমিনারে আলোচকরা এসব কথা বলেন। ভোক্তা'র চেয়ারম্যান মুহাম্মদ আলী জিন্নাহর সভাপতিত্বে শনিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে অনুষ্ঠিত সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. এম নাজিম উদ্দিন। সেমিনারের শুরুতেই রাসায়নিকমুক্ত খাদ্য উৎপাদন ও বিপণন ব্যবস্থাকে নিরূৎসাহিত করে জৈব খাদ্য উৎপাদন এবং বিপনন ব্যবস্থা শক্তিশালী করার পক্ষে দেশব্যাপী প্রচারণার অংশ হিসেবে জনসচেতনতামূলক পুঁথি পাঠ করেন পুঁথি শিল্পী কাব্য কামরুল। আলোচকরা রাসায়নিকযুক্ত খাদ্য উৎপাদন ও বিপণন ব্যবস্থার বদলে জৈব খাদ্য উৎপাদন ও বিপণন ব্যবস্থা শক্তিশালী করার প্রচারণা সফল করে সাধারণ মানুষের জন্য নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে সর্বস্তরের মানুষকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক খলিলুর রহমান সজলের সঞ্চালনায় সেমিনারে অ্যানিমেল হেলথ স্পেশালিস্ট ও জাপান ভেটেরিনারি অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক চেয়ারম্যান ডা. উয়েমুড়া তাকাশি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর অ্যাডভান্সড রিসার্চ ইনসায়েন্সেস-এর প্রধান বিজ্ঞানী ড. লতিফুল বারী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. হোসেন উদ্দিন শেখর, বাংলাদেশ সিড অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আসাদুল আমিন, ঠাকুরগাঁও চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ সভাপতি হাবিবুল ইসলাম বাবলু এবং ভোক্তার পরিচালনা পর্ষদের সদস্য সাইদুল আবেদীন ডলার আলোচনায় অংশ নেন। প্রসঙ্গত ভলান্টারি কনজুমারস ট্রেনিং অ্যান্ড অ্যাওয়ারনেস সোসাইটি (ভোক্তা) ভোক্তা অধিকার রক্ষার আন্দোলনে নিবেদিত ১১৫টি দেশের ২২৫টি ভোক্তা সংগঠনের ফেডারেশন ‘কনজুমারস ইন্টারন্যাশনাল’ এর পূর্ণ সদস্য। /জেএ/একে/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।