সকাল ০৮:৫৭ ; বৃহস্পতিবার ;  ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯  

রাজনীতিতে নারী নেতৃত্ব: প্রয়োজন স্বচ্ছতা ও গণতান্ত্রিক অঙ্গিকার

গোলটেবিল আলোচনায় বক্তারা

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট॥

রাজনীতিতে নারী নেতৃত্বের বিকাশের জন্য জবাবদিহীতা এবং গণতন্ত্রের প্রতি অঙ্গিকার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। গতকাল রাজধানীতে নারীর জয়ে সবার জয় শীর্ষক ওয়েবসাইটের উদ্বোধন উপলক্ষে এক গোলটেবিল আলোচনায় উপস্থিত বক্তারা এ মতামত তুলে ধরেন। ইউএসএআইডি এবং ইউকেএআইডি-এর যৌথ অর্থায়নে ‘গণতান্ত্রিক অংশগ্রহণ এবং সংস্কার-ডিপিআর নামক গণতন্ত্র এবং শাসন বিষয়ক প্রকল্পের অংশ হিসেবে ২০১২ সালে যাত্রা শুরু করে ‘নারীর জয়ে সবার জয়’ প্রচারণা কার্যক্রম।

বাংলাদেশ উইমেন চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের প্রতিষ্ঠাতা সেলিমা আহমেদ বলেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে নারীদের অংশগ্রহণ এখনো পুরুষতান্ত্রিক সমাজব্যবস্থার নিচে চাপা পড়ে আছে। তাই রাজনীতিতে নারীদের আরো এগিয়ে নিয়ে আসতে তাদের অধিকারের ক্ষেত্রে দলমত নির্বিশেষে সব নারীদের এক হতে হবে।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান ডব্লিউ মজীনা, ইউএসএআইডি-এর মিশন ডিরেক্টর জেনিনা জেরুজেলস্কি, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের প্রেসিডেন্ট আয়শা খানম এবং ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল-এর ডেপুটি চিফ অফ পার্টি কেটি ক্রোক।

বাংলাদেশে মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান ডব্লিউ মজীনা বলেন, নারীর অংশগ্রহণ ছাড়া সমাজ, দেশ, গণতন্ত্র কোনো কিছুই এগিয়ে যেতে পারে না। তিনি বলেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে নারীর গর্ব করার মতো অবস্থান আছে। তারপরও নারীদের দেশের মোট জনসংখ্যার অবস্থান অনুযায়ী নীতি-নির্ধারণী পর্যায় আরও অনেক এগিয়ে যেতে হবে।

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সভাপতি আয়শা খানম বলেন, দীর্ঘদিন ধরে নারীরা নিজেদের অধিকার আদায়ে সংগ্রাম করছেন। রাজনৈতিক সদিচ্ছা থাকলে সব ক্ষেত্রেই নারীর ক্ষমতায়ন সম্ভব।

ছবি: মাহমুদ হোসাইন অপু, ঢাকা ট্রিবিউন।

/এএ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।