সকাল ০৯:১০ ; বৃহস্পতিবার ;  ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯  

নান্দাইলে গৃহবধূকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি॥

ময়মনসিংহের নান্দাইল পৌরশহরের আচারগাঁও এলাকার একটি বাসায় কেরোসিনের আগুনে দগ্ধ হয়ে তামান্না আক্তার (২৪) নামে এক গৃহবধূ শুক্রবার মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার রাত পৌনে দুইটায় তিনি অগ্নিদগ্ধ হন।

তামান্না নান্দাইল পৌর শহরের কাঠ ব্যবসায়ী হেলাল উদ্দিনের (৪০) দ্বিতীয় স্ত্রী। এদিকে, মেয়ের মৃত্যুর ঘটনাটি হত্যাকাণ্ড দাবি করে নান্দাইল মডেল থানায় অভিযোগ করেছেন বাবা মোমতাজ উদ্দিন।

বিভিন্ন সূত্রে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তামান্নার বাড়ি উপজেলার জাহাঙ্গীরপুর ইউনিয়নের কড়ইকান্দি গ্রামে। আগের স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হওয়ার পর তাকে হেলাল দুই বছর আগে বিয়ে করেন। তামান্নার আট মাস বয়সী একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

তামান্নার বাবা মোমতাজ উদ্দিন বলেন, 'বৃহস্পতিবার রাত দুইটার পর তার মেয়ে ফোন করে আর্তচিৎকার করে বলে, 'বাবা আমি মরে যাচ্ছি। এরপরই লাইনটি কেটে যায়। ঘটনাটি ভালোভাবে বুঝতে মেয়েকে ফোন করলে ফোনটি বন্ধ পাই।'

তিনি অভিযোগ করে জানান, তার মেয়েকে হেলাল, তার প্রথম পক্ষের স্ত্রী নার্গিস ও তার সন্তানেরা মিলে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে।

নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক নূরুজ্জামান জানান, 'হাসপাতালে আনলে দেখা যায় তামান্নার প্রায় শরীরের৭০ শতাংশ দগ্ধ হয়ে গেছে। পরে তাকে দ্রুত ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্যে পরামর্শ দেয়া হয়। সেখানে থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাবার পথে তামান্না মারা যান।

নান্দাইল মডেল থানা ওসি সাইফুল ইসলাম ফরাজি বলেন, 'এ বিষয়ে মামলার প্রস্ততি চলছে।'

/একে/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।