সকাল ১০:৫৮ ; রবিবার ;  ২১ এপ্রিল, ২০১৯  

পাঁচ কোটি ছাড়াল গ্রামীণফোনের গ্রাহক

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট॥ দেশের বেসরকারি মোবাইলফোন অপারেটর গ্রামীণফোনের গ্রাহক ৫ কোটি ছাড়িয়েছে। গ্রাহক সংখ্যার বিচারে গ্রামীণফোন দেশের টেলিযোগাযোগের ইতিহাসে নতুন মাইলফলক স্থাপন করল। ১৭ বছরের প্রচেষ্টায় অপারেটরটি আজ এ অবস্থানে পৌঁছেছে। মঙ্গলবার রাজধানীর ওয়েস্টিন হোটেলে এ উপলক্ষে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে গ্রামীণফোন অনুষ্ঠানে গ্রামীণফোনের প্রথম গ্রাহক লাইলি বেগম ও পাঁচ কোটিতম গ্রাহক আরেফিন সিদ্দিকের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী বিবেক সুদ।

১৯৯৭ সালের ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসে যাত্রা শুরু করে গ্রামীণফোন। বর্তমানে দেশের সর্ববৃহৎ এবং সবচেয়ে বিস্তৃত নেটওয়ার্ক রয়েছে গ্রামীণফোনের। দেশের মোবাইলফোন বাজারের ৪২ শতাংশ অপারেটরটির দখলে।

'সবার জন্য ইন্টারনেট' কর্মসূচির আওতায় গ্রামীণফোন প্রথম অপারেটর হিসেবে দেশের ৬৪ জেলায় থ্রিজি সেবা পৌঁছে দিয়েছে।

পাঁচ কোটি গ্রাহকের অপারেটর গ্রামীণফোনের ৫৫ দশমিক ৮ শতাংশ শেয়ারের মালিক নরওয়েভিত্তিক প্রতিষ্ঠান টেলিনরের।

অপারেটরটির প্রধান নির্বাহী বিবেক সুদ বলেন, “টেলিনর ১৩টি দেশে তাদের কার্যক্রম চালাচ্ছে। সব মিলিয়ে টেলিনরের গ্রাহক সংখ্যা সাড়ে ১৭ কোটি। এর মধ্যে গ্রামীণফোনের গ্রাহক সংখ্যাই সবচেয়ে বেশি।”

তিনি জানান, সেপ্টেম্বর মাসের মাঝামাঝি গ্রামীণফোন এই মাইলফলক অর্জন করে। অাজ অানুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দেওয়া হলো।

এ মাইলফলক উদযাপন উপলক্ষে গ্রাহকদের জন্য আকর্ষণীয় সব অফারের কথাও অনুষ্ঠানে তুলে ধরেন অপারেটরটির প্রধান বিপণন কর্মকর্তা (সিএমও) অ্যালান বনকে।

তিনি বলেন, গ্রামীণফোন থ্রিজি গ্রাহকেরা তাদের মোবাইলফোনে বর্তমানে ইন্টারনেট প্যাকেজে কোনও বাড়তি খরচ ছাড়াই দ্বিগুণ গতির ইন্টারনেট উপভোগ করতে পারবেন। তিনি এ সময় ৫টি অফারের ঘোষণা দেন।

/এইচএএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।