সকাল ১০:৪৪ ; বুধবার ;  ১৩ নভেম্বর, ২০১৯  

শিশু গৃহকর্মীকে পেটানো হতো হাতুড়ি দিয়ে

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট॥ ১০ বছর বয়স ঝুমুরের। সাত-আট মাস আগে পূর্ব মেরুল বাড্ডার মাসুদ পারভেজ নামের এক ব্যাংক কর্মকর্তার বাসায় গৃহকর্মী হিসেবে যোগ দেয় সে। এরপর থেকে নানানভাবে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালাতেন মাসুদ পারভেজের স্ত্রী ফারজানা আক্তার তানিয়া। নানা অজুহাতে হাতুড়ি দিয়ে পেটানো হতো ঝুমুরকে। কখনও দেওয়া হতো খুন্তির ছেকা। প্রতিনিয়ত মারধরতো আছেই। এমন অবস্থায় শনিবার দুপুরে বাড্ডা থানা পুলিশ গৃহকর্মী ঝুমুরকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে। গুরুতর অবস্থায় তাকে হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। বাড্ডা থানার ওসি এম এ জলিল বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, কাজে দেওয়ার পর থেকেই মাসুদ পারভেজের স্ত্রী ফারজানা আক্তার তানিয়া শিশুটিকে নানা অজুহাতে নির্যাতন করতো। নির্যাতনের বিষয়টি ঝুমুর তার মাকে জানায়। ওসিসিতে ভর্তি ঝুমুর বাংলা ট্রিবিউনকে জানায়, নানা অজুহাতে তাকে বেদম মারধর করতো গৃহকর্তী ফারজানা। মাসুদ পারভেজ গুলিস্তানে ব্র্যাক বাংকে কর্মরত রয়েছেন। অভিযোগ পাওয়ার পর পুলিশ গিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার ও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মাসুদ পারভেজ ও তার স্ত্রী ফারজানাকে আটক করা হয়েছে। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে তারা নির্যাতনের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তারা পুলিশকে জানান, টাকা আদায় করার জন্য শিশুটির অভিভাবকরা এমন অভিযোগ করছেন। ওসি জানান, শিশুটির মা লিখিত অভিযোগ দিলে তাদের গ্রেফতার করা হবে বলে জানান। /জেইউ/এমআর/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।