রাত ১০:২২ ; শুক্রবার ;  ২২ মার্চ, ২০১৯  

সাবধান, বাজারে স্যামসাংয়ের নকল মেমোরি কার্ড!

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

 

রুশো রহমান ॥ ঈদকে সামনে রেখে দেশের প্রযুক্তি বাজারে ছড়িয়ে পড়ছে নকল মেমোরি কার্ড। স্যামসাং ব্র্যান্ডের নাম ব্যবহার করে বিক্রি হওয়া এসব মেমোরি কার্ড কিনে প্রতারণার শিকার হচ্ছেন ক্রেতারা। নিম্নমানের এসব নকল মেমোরি কার্ড নিয়ে ক্রেতাদের অভিযোগের শেষ নেই।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, স্যামসাং কোনও ধরনের মেমোরি কার্ড উৎপাদন ও বিক্রি করে না। স্যামাংয়ের নাম ভাঙিয়ে নকল এসব কার্ড এক ধরনের অসাধু ব্যবসায়ীরা তৈরি করে বাজারজাত করছে। নিম্নমানের এসব কার্ড দামেও সস্তা।

রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোডের মাল্টিপ্ল্যান সেন্টারের কম্পিউটার মার্কেট স্যামসাং মাইক্রো এসডিএইচসি কার্ড কিনে প্রতারণার শিকার হওয়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান অনুষদের ছাত্র মুতাসিম বিল্লাহ জানান, কার্ডের গায়ে ১৬ জিবি লেখা থাকলেও বাসায় গিয়ে স্মার্টফোনে ঢুকিয়ে দেখা যায় সেটির ধারণক্ষমতা ১০ জিবি।

একইভাবে ধানমন্ডির গৃহিনী লুৎফুন্নাহার জানান, তিনিও নকল মেমোরি কার্ড কিনে প্রতারণার শিকার হয়েছেন। তার মেমোরি কার্ড ক্লাস-১০ এর বলা হলেও এর গতি ক্লাস-৪ এর চেয়েও কম। এসব মেমোরি কার্ডে কোনও ওয়ারেন্টি না থাকায় এটি বদল করতে না পেরে আবারও তাকে মেমোরি কার্ড কিনতে হয়েছে।

এ বিষয়ে স্যামসাং বাংলাদেশের মোবাইলফোন বিভাগের প্রধান হাসান মেহদী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, স্যামসাং কোনও মেমোরি কার্ড তৈরি করে না। বাংলাদেশে স্যামসাং পরিবেশিত কোনও মেমোরি কার্ডও নেই। কারা এবং কীভাবে এটি বিক্রি করছে তা অামাদের জানা নেই।

স্যামসাং -এর নকল মেমোরি কার্ডের কারণে নাজেহাল সাধারণ ক্রেতারা। এ বিষয়ে কম্পিউটার সোর্সের পরিচালক আসিফ মাহমুদ বলেন, আমাদের ডিলাররাও অভিযোগ করেছেন। আমাদের আউটলেটগুলোতে এসেও অনেক ক্রেতা অভিযোগ করেছেন। তিনি বলেন, নকল মেমোরি কার্ড স্মার্টফোনের মাদারবোর্ডের ক্ষতি করে। সুতরাং মেমোরি কার্ড কেনার অাগে ভালো করে যাচাই বাছাই করে কেনা উচিত।

এইচএএই/

 

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।