রাত ০২:৫৩ ; রবিবার ;  ১৬ জুন, ২০১৯  

ভিওআইপি কলরেট অর্ধেক হচ্ছে না

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ দেশের অবৈধ ভিওআইপি (ভয়েস ওভার ইন্টারনেট প্রটোকল) রোধে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিঅারসি কলরেট ৫০ শতাংশ কমানোর উদ্যোগ নিলেও তা কার্যকর হচ্ছে না। বিটিঅারসির এ সংক্রান্ত প্রস্তাব অর্থমন্ত্রণালয় বাতিল করে দিয়েছে।

গত মঙ্গলবার অর্থমন্ত্রণালয় প্রস্তাব বাতিল সংক্রান্ত চিঠি বিটিঅারসিতে পাঠিয়েছে। এই নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো বিটিঅারসির এ সংক্রান্ত প্রস্তাব বাতিল করল অর্থমন্ত্রণালয়।

তবে অর্থমন্ত্রণালয় বিটিঅারসিকে চিঠিতে এ বিষয়ে 'কনসালটেন্ট' নিয়োগের পরামর্শ দিয়ে বলেছে, কনসালটেন্টই নতুন করে প্রস্তাবপত্র তৈরি করবে। বিটিঅারসি অারও গভীরভাবে বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করবে। কলরেট বমানোর ফলে এ শিল্পে কী প্রভাব পড়বে তাও বিবেচনায় অানতে বলা হয়েছে।

বিটিআরসি এর অাগে কলরেট অর্ধেক এবং ভিওআইপি কলে রাজস্ব ভাগাভাগির রেট (রাজস্ব ভাগাভাগি ৫১ থেকে ৪০ শতাংশে নামিয়ে আনার প্রস্তাব) কমানোর প্রস্তাব পাঠায় ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ে। টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় বিষয়টির আর্থিক দিক বিবেচনার জন্য অর্থ মন্ত্রণালয়ে পাঠায়।

অর্থমন্ত্রণালয় ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়কে জানায়, কলরেট ৩ সেন্ট থেকে কমিয়ে দেড় সেন্ট করা হলে সরকারের রাজস্ব আয় প্রায় ১ হাজার ৭৩ কোটি টাকা কম হবে।

গত মার্চ মাসে অর্থমন্ত্রণালয় প্রথমবারের মতো প্রস্তাবটি বাতিল করে। এর পরে গত মাসে বিটিঅারসি অাবারও প্রস্তাব পাঠায় অর্থমন্ত্রণালয়ে। প্রস্তাবে বলা হয়, ভিওঅাইপি কলরেট অর্ধেক করা হলে দেশে অাসা মোট কল বাড়বে। এতে সরকারের ‌‌অায় তো কমবেই না বরং ১৬২ কোটি টাকা অায় বাড়বে। এই প্রস্তাবও অর্থমন্ত্রণালয় বাতিল করেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, আইজিডব্লিউ (ইন্টারন্যাশনাল গেটওয়ে) অপারেটররা প্রতি কলের জন্য ৩ সেন্ট (২ টাকা ৪০ পয়সা) করে নেয়। কল রেট অর্ধেক কমলে যা নেমে আসবে দেড় সেন্টে (১ টাকা ২০ পয়সায়)। তখন বৈধ ও অবৈধ কলের আয়ে ব্যবধান থাকবে না। বর্তমান রেটে বৈধ পথে একটি কল এলে আইজিডব্লিউ অপারেটরদের সব খরচ বাদ দিয়ে মুনাফা থাকে ১২-১৫ পয়সা। আর অবৈধ ভিওআইপি কারবারীদের লাভ থাকে দেড় থেকে পৌনে দুই টাকা।

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালের এপ্রিলে আইজিডব্লিউ’র ২৫টি লাইসেন্স দেয় সরকার। বেশি অপারেটর এলে বৈধ পথে আসা কলের সংখ্যা বাড়বে ধারণা করা হলেও কল সংখ্যা বাড়েনি। লাইসেন্স ইস্যু করার আগে বৈধ পথে কল আসত প্রায় সাড়ে ৫ কোটি মিনিট। নতুন অপারেটররা অপারেশনে এলে বৈধ পথে কলের সংখ্যা আড়াই কোটি মিনিটে নেমে যায়। যদিও বর্তমানে প্রতিদিন কল অাসছে (৩১ মে পর্যন্ত) ৫ কোটি ৮৫ লাখ মিনিট।

জানা গেছে, বাংলাদেশে আসা প্রতি মিনিট অাসা অান্তর্জতিক কলের রেট ৩ সেন্ট, থাইল্যান্ড ও সিঙ্গাপুরে যা ৬, ফিলিপাইনে ১১, শ্রীলংকায় ৯, পাকিস্তানে ৮.৮ সেন্ট। কেবল পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে এই রেট ১ সেন্ট। ভারতের কলরেট নির্ধারিত হয়েছে সে দেশের মোট জনসংখ্যার ওপর ভিত্তি করে।

এইচএএইচ

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।