রাত ০৩:১১ ; রবিবার ;  ১৬ জুন, ২০১৯  

জেমকন সাহিত্য পুরস্কার পেলেন হাসান অাজিজুল হক ও অাফসানা বেগম

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

শহীদুল ইসলাম সোহাগ ॥

বাংলা সাহিত্যের সৃজনশীল লেখকদের সম্মানিত করার লক্ষ্যে এবারও দুজন সাহিত্যিককে 'জেমকন সাহিত্য পুরস্কার ২০১৪' প্রদান করা হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর রূপসী বাংলা হোটেলের বলরুমে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এ পুরস্কার প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানটির অায়োজন করে জেমকন গ্রুপ।

সাহিত্যিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বদের মিলন মেলায় এই বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে 'প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক হাসান অাজিজুল হককে 'জেমকন সাহিত্য পুরস্কার ২০১৪' এবং কথাসাহিত্যিক অাফসানা বেগমকে 'জেমকন তরুণ কথাসাহিত্য পুরস্কার' প্রদান করা হয় ।

পুরস্কারের স্বীকৃতিস্বরূপ হাসান অাজিজুল হককে তাঁর 'সাবিত্রী উপাখ্যান' গ্রন্থের জন্য নগদ তিন লাখ টাকা, ক্রেস্ট ও সম্মাননাপত্র প্রদান করা হয়।

অপরদিকে অাফসানা বেগমকে তাঁর 'দশটি প্রতিবিম্বের পাশে' নামক গল্পের পাণ্ডুলিপির জন্য নগদ ৭৫ হাজার টাকা, ক্রেস্ট ও সম্মাননাপত্র প্রদান করা হয়। জেমকন গ্রুপের চেয়ারম্যান কাজী শাহেদ অাহমেদ পুরস্কারপ্রাপ্তদের হাতে এ অর্থমূল্য তুলে দেন।

শুভেচ্ছা বক্তব্যে জেমকন গ্রুপের পরিচালক ড. কাজী অানিস অাহমেদ বলেন, ''অামরা ২০০০ সালে 'কাগজ সাহিত্য পুরস্কার' প্রবর্তন করি। পরে ২০০৭ সাল থেকে তা 'জেমকন সাহিত্য পুরস্কার' নামে প্রতিবছর প্রদান করে অাসছি। বাংলা সাহিত্যের সৃজনশীল লেখকদের সম্মানিত করার জন্যই মূলত এ অায়োজন। এই সাহিত্য পুরস্কার সৃষ্টিশীল লেখকদের প্রেরণা জোগাবে বলে অামার বিশ্বাস। এ পুরস্কার শুধু লেখক ও সাহিত্যিকদেরই সম্মানিত করবে না, বাংলা সাহিত্যের উন্নয়নের জন্য নতুনদেরও উৎসাহিত করবে বলে অামি মনে করি।'

DSC_0437

অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে কথাসাহিত্যিক হাসান অাজিজুল হক বলেন, 'প্রত্যাশাহীন কর্তব্য পালনের জন্য যদি পুরস্কার প্রাপ্তি ঘটে, তাহলে অানন্দের সীমা থাকে না। অামি ক্রিয়া করেছি, যার কারণে অাপনারা প্রতিক্রিয়া করে পুরস্কার প্রদান করেছেন। '

তিনি অারও বলেন, 'অামি বলতে চাচ্ছি যে, যেটা বুঝাতে চেয়েছি সেটা অামার লেখার মাধ্যমে অাপনাদের কাছে তুলে ধরেছি এবং অামার এই লেখা সমাজের কাছে ছেড়ে দিয়েছি। এখন সমাজ তার ভার বহন করবে।'

জেমকনকে ধন্যবাদ জানিয়ে তরুণ কথাসাহিত্যিক অাফসানা বেগম বলেন, 'অামার জীবনের পরম অানন্দের দিন অাজ। কারণ হাসান অাজিজুল হক স্যারের মতো গুণী মানুষের সঙ্গে এসে পুরস্কার নিচ্ছি- এটাই হচ্ছে অামার জীবনের সবচেয়ে বড় পুরস্কার। অাসলে কথা বইয়ে লেখা থাকে না, থাকে মনের ভেতরে, অার সেই লেখাকে সেখান থেকে অাঁচড়ে অাঁচড়ে নিতে হয়। অামি এই কাজটিই করার চেষ্টা করেছি।'

অনুষ্ঠানে অারও উপস্থিত ছিলেন সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হক, . রফিকুল ইসলাম, ভারতের কথাসাহিত্যিক মিহির সেনগুপ্ত, রবিশংকর বল, কবি রণজিৎ দাশ, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান, শিল্পী অভী চৌধুরী, ঝুমুর অাহমেদ প্রমুখ।

ছবি: ইফতেখার ওয়াহিদ ইফতি

এসঅাইএস/এএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।