রাত ০২:১৭ ; সোমবার ;  ০৫ ডিসেম্বর, ২০১৬  

পাইকগাছায় ভোট কেন্দ্রে যাওয়া নিয়ে সংশয়ে ভোটাররা

প্রকাশিত:

খুলনা প্রতিনিধি।।

খুলনার পাইকগাছা পৌরসভা শেষ মুহূর্তে প্রচার প্রচারণায় জমজমাট হয়ে উঠেছে। মেয়র প্রার্থীদের পাশাপাশি কাউন্সিলর প্রার্থীরাও ব্যাপক গণসংযোগ করছেন। এরপরও প্রার্থীদের মধ্যে কারচুপি,ভোট ডাকাতি হওয়া নিয়ে যেমন আশঙ্কা রয়েছে, তেমনি ভোট কেন্দ্রে যাওয়া নিয়েও সংশয়ের মধ্যে রয়েছেন ভোটাররা।

পাইকগাছা পৌরসভা ১৯৯৭ সালের ১ ফেব্রুয়ারি স্থাপিত হয়েছে। বর্তমানে এ পৌরসভায় ভোটার সংখ্যা ১২ হাজার ৬৮৫। আগামী ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে মেয়র প্রার্থীর সংখ্যা ৩ জন,কাউন্সিলর প্রার্থী ৩৯ জন। মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত (বর্তমান মেয়র) সেলিম জাহাঙ্গীর (নৌকা),বিএনপি মনোনীত অ্যাভোকেট জি এম আব্দুস সাত্তার (ধানের শীষ) ও জামায়াত সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে আব্দুল মজিদ (নারিকেল গাছ) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। নৌকা ও ধানের শীষ প্রার্থীর পক্ষে খুলনা জেলা,মহানগর ও থানা পর্যায়ে বিভিন্ন শ্রেণীর নেতারা গণসংযোগে নেমে করছেন।

সাধারণ ভোটারদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে,আওয়ামী লীগ প্রার্থী বর্তমান মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর নৌকা প্রতীক ও বিএনপির প্রার্থী অ্যাভোকেট আব্দুস সাত্তার ধানের শীষ প্রতীক পাওয়ার পর দুজনেরই অবস্থার পরিবর্তন ঘটেছে। নৌকা ও ধানের শীষ প্রতীকের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের সম্ভাবনা রয়েছে।

আওয়ামী মনোনীত প্রার্থী সেলিম জাহাঙ্গীর বলেন,নির্বাচনে ভোট ডাকাতি বা ভোট কারচুপির কোনও সম্ভাবনা নেই। তিনি সুষ্ঠু নির্বাচন হবে বলে প্রত্যাশা করছেন।

বিএনপি মনোনীত প্রার্থী অ্যাভোকেট আব্দুস সাত্তার বলেন,এখনও নির্বাচনের জন্য সুষ্ঠ পরিবেশ রয়েছে। তবে পরে কি হবে এ মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না। সুষ্ঠ নির্বাচন হলে তিনি বিজয়ী হবেন বলে বিশ্বাস করেন।

ভোটাররা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান,আগের মত এবারও একই প্রক্রিয়া অব্যহত থাকলে ভোটাররা কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারবে না। প্রার্থীরা বাক-বিতণ্ডায় লিপ্ত হওয়ার মাত্রা ক্রমেই বাড়ছে। ফলে ভোটের দিনের পরিবেশ নিয়ে সংশয় সৃষ্টি হচ্ছে।

রিটার্নি অফিসার মো. হাবিবুর রহমান বলেন, ভোট অবাধ, সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ হবে। কোনও কারচুপি বা ডাকাতির সম্ভাবনা নেই। পৌরসভার সব কেন্দ্রকে অধিক গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। ফলে কেন্দ্রগুলোতে কঠোর নিরাপত্তা বলয় থাকবে। ভোটের ফলাফল কেন্দ্র থেকেই ঘোষণা করা হবে বলে তিনি জানান।

/জেবি/এমআর/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।