রাত ০২:২৪ ; সোমবার ;  ০৫ ডিসেম্বর, ২০১৬  

২০২০ নাগাদ তেলের দর হবে ৭০ ডলার: ওপেক

প্রকাশিত:

বিজনেস ডেস্ক।।

তেল উৎপাদক ও রফতানিকারক দেশগুলোর সংগঠন ওপেক আশা করছে, আগামী ২০২০ সাল নাগাদ প্রতি ব্যারেল অশোধিত তেলের দর হবে ৭০ ডলার।

অতিরিক্ত সরবরাহ এবং চাহিদা কমতে থাকায় তেলের দর ধারাবাহিকভাবে কমছে। ২০১৪ সালের গ্রীষ্মে এ দর ছিল ব্যারেল প্রতি ১১০ ডলার। সেখান থেকে এ দর গত সোমবার নেমে এসে দাঁড়িয়েছে ৩৭ ডলারে।

কিন্তু ওপেক বলছে, অনুসন্ধান বাবদ অধিক খরচের কারণে আগামী বছর থেকে দীর্ঘ সময়ের জন্য তেলের দর বাড়তে শুরু করবে।

এদিকে প্রতিদ্বন্ধী পক্ষগুলো বাজার দখলে অধিক সক্ষমতা দেখানোয় ধারণা করা হচ্ছে, তেল উৎপাদনে ২০২০ সাল নাগাদ ওপেক’র অংশীদারিত্ব আরও কমবে।

বর্তমানে বিশ্বব্যাপী উৎপাদিত জ্বালানি তেলের ৩০ শতাংশ উৎপাদন করে ওপেক। এ হার ১৯৭০ সালে ছিল ৫০ শতাংশ।

তেলের দর ১১ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন অবস্থানে নেমে আসার পেছনে একটি কারণ যুক্তরাষ্ট্রের উৎপাদন ও সরবরাহ বৃদ্ধি।

ওপেক’র ওয়ার্ল্ড অয়েল আউটলুক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের তেলের সরবরাহ আগামী বছর নাটকীয়ভাবে কমে যাবে। কেননা, এত নিম্ন দরের সঙ্গে উৎপাদকদের খাপ খাওয়াতে বেগ পেতে হবে।  

চলতি বছর ওপেক’র কৌশল হচ্ছে, বিদ্যমান উৎপাদন সীমা বজায় রেখে দর কমতে দেওয়া। এতে যুক্তরাষ্ট্রের উৎপাদকরা ব্যবসা থেকে চলে যেতে বাধ্য হবে।  

তেলের নিম্ন দরের আরেকটি কারণ হিসেবে ওপেক বলছে, দুর্বল অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, বিশেষত উন্নয়নশীল দেশগুলো।

পাশাপাশি চীনের অর্থনৈতিক পরিপক্কতা অর্জনের সঙ্গে চাহিদার পতন আগের ধারণার তুলনায় অধিকতর দ্রুত বলে বিশেষভাবে প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ করা হয়েছে। সূত্র: বিবিসি।

/এফএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।