সন্ধ্যা ০৭:৫৭ ; বৃহস্পতিবার ;  ১৮ জুলাই, ২০১৯  

নির্বাচন করাই যার নেশা

ইউপি চেয়ারম্যান থেকে সাংসদ সবই হয়েছেন তিনি

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

শরীয়তপুর প্রতিনিধি॥

শরীয়তপুর সদর পৌরসভায় মেয়র পদে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সরদার একেএম নাসির উদ্দিন কালু। তিনি জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক। ইউনিয়ন পরিষদ হতে জাতীয় সংসদ পর্যন্ত সব স্তরে তিনি নির্বাচন করে বিজয়ী হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, সরদার একেএম নাসির উদ্দিন কালু সদর উপজেলার বিনোদপুর গ্রামের মৃত হোসেন আলী সরদারের ছেলে। তিনি ১৯৭৭ সালে বিনোদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ১৯৭৯ সালে বিএনপি থেকে মনোনয়ন পেয়ে শরীয়তপুর-১ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৮৪ সালে পুনরায় বিনোদপুর ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ১৯৮৫ সালে জাতীয় পার্টিতে যোগ দিয়ে শরীয়তপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ১৯৮৬ সালে জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়ন নিয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৮৮ সালে পুনরায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৮৮ সালে শরীয়তপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ১৯৯১ সালে বিএনপিতে যোগ দিয়ে শরীয়তপুর-১ আসনে নির্বাচন করে হেরে যান। ২০০৫ সালে শরীয়তপুর পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হন। ২০০৮ সালে পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর রব মুন্সীর কাছে পরাজিত হন। এ বছর পৌর নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে পুনরায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সরদার একেএম নাসির উদ্দিন কালু বলেন, আমি জনগণের কল্যাণে কাজ করি। দেশের উন্নয়নের জন্য জীবনের দীর্ঘসময় বিভিন্ন স্তরে প্রতিনিধিত্ব করেছি। মানুষের জন্য কাজ করার কারণে তারা সবসময় আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছে। আমি বিশ্বাস করি এবারও তারা আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন।

/এএইচ/

আপ-এআর

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।