সন্ধ্যা ০৬:১১ ; রবিবার ;  ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৬  

দুপচাঁচিয়ায় ছাত্রলীগ সভাপতিকে কোপাল স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মীরা

প্রকাশিত:

বগুড়া প্রতিনিধি।।

বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি এসএম আসলামকে কুপিয়ে মারাত্মক আহত করেছে স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মীরা। এ ঘটনায় পুলিশ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মেহেদী হাসান সজলসহ ও সহ-সভাপতি আবদুস সালামকে আটক করেছে।

বুধবার সন্ধ্যায় দুপচাঁচিয়ার সিও অফিস বাসস্ট্যান্ড কাঁচাবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মারাত্মক আহত  এসএম আসলামকে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারসহ নানা কারণে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি পূর্ব আলোহালী গ্রামের আব্বাস আলীর ছেলে এসএম আসলামের সঙ্গে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মেহেদী হাসান সজলের বিরোধ চলে আসছে। বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ছাত্রলীগ নেতা আসলাম সিও অফিস এলাকায় উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে ছিলেন। এ সময় মেহেদী হাসান সজল ও আবদুস সালাম তাকে কাঁচাবাজার এলাকায় ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে তারা ধারালো অস্ত্র দিয়ে আসলামের মাথা ও দুই পাশে আঘাত করেন।  এসময় এলাকাবাসী রক্তাক্ত আসলামকে প্রথমে দুপচাঁচিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তাকে স্থানান্তর করা হয়।

আটককৃত মেহেদি হাসান সজল উপজেলার ছাতিয়াগাড়ি গ্রামের পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে। এছাড়া আরেক আটককৃত আবদুস সালাম একই এলাকার আবদুস সাত্তারের ছেলে।

দুপচাঁচিয়া থানার ওসি (তদন্ত) জহুরুল হক জানান,পূর্ব বিরোধের জের ধরে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সজলের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ছাত্রলীগ নেতা আসলাম গুরুতর আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় জড়িত থাকায় স্বেচ্ছাসেবক লীগের দুই নেতাকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে মামলা দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে।

/এসএম/

 

 

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।