রাত ০৯:১৯ ; মঙ্গলবার ;  ১৬ অক্টোবর, ২০১৮  

ব্রুনাই, তাজিকিস্তান ও সোমালিয়ায় প্রকাশ্য বড়দিন উদযাপনে নিষেধাজ্ঞা

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বিদেশ ডেস্ক।।

মুসলিমদের বিশ্বাসকে ক্ষুণ্ন করতে পারে এমন দাবি করে আড়ম্বরপূর্ণভাবে কিংবা প্রকাশ্যে বড়দিন উদযাপনের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ব্রুনাই ও সোমালিয়া। আর বরাবরের মতই বড়দিন উদযাপনের ওপর সীমাবদ্ধতা আরোপ করা হয়েছে আরেক মুসলিম দেশ তাজিকিস্তানে।

বোর্নিও দ্বীপের দেশ ব্রুনাইয়ের ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘অ-মুসলিমরা ক্রিসমাস উদযাপন করতে পারবেন কিন্তু তা কেবল তাদের কমিউনিটির মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে। আর অনুষ্ঠান আয়োজনের আগে তারা অবশ্যই কর্তৃপক্ষকে এ ব্যাপারে অবহিত করবেন।’

প্রকাশ্য ও ব্যাপকভাবে ক্রিসমাস উদযাপন যা মুসলিম সম্প্রদায়ের বিশ্বাসকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে সেসব ক্ষেত্রে কঠোরতা আরোপ করা হবে বলেও জানানো হয় বিবৃতিতে। একইসঙ্গে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করলে ৫ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হবে বলেও সতর্ক করা হয়।

৪ লাখ ২০ হাজার জনসংখ্যার দেশ ব্রুনাইয়ের অন্তত ৬৫ শতাংশই মুসলিম।  

চলতি মাসের শুরুতেই ইসলামের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট নয় এমন উৎসবে যোগদানের মধ্য দিয়ে মুসলিমদের বিশ্বাস ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে বলে সতর্ক করেছিলেন ইমামদের একটি দল। সেসময় তারা বলেন,‌‌'ক্রিসমাস পালন করতে গিয়ে মোমবাতি জ্বালানো, ক্রিসমাস ট্রি তৈরি করে, ধর্মীয় গান গাওয়াসহ খ্রিস্টান ধর্মের অনেক নিয়ম-কানুনকে অনুসরণ করে পেলে মুসলিমরা।  আর এ ধরনের কর্মকাণ্ড ইসলামি বিশ্বাসের ওপর প্রভাব ফেলে।’  

এদিকে প্রকাশ্যে ক্রিসমাস উদযাপনের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপকে প্রত্যাখ্যান করে এরইমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে #মাই ট্রিডম হ্যাশট্যাগ-এ প্রচারণা চালাচ্ছে ব্রুনাইয়ের একটি গোষ্ঠী। এ প্রচারণার আওতায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একের পর এক ক্রিসমাস ট্রি-এর ছবি আপলোড করা হচ্ছে।

মুসলিমদের বিশ্বাসকে ক্ষুন্ন করতে পারে এমন অজুহাত দেখিয়ে ২০০৯ সাল থেকে প্রকাশ্যে ক্রিসমাস উদযাপনের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে আসছে সোমালিয়াও। তবে দেশটিতে থাকা বিদেশি অমুসলিম নাগরিকরা ক্রিসমাস উদযাপন করতে পারবেন। 

এদিকে ক্রিসমাস ট্রি তৈরি এবং স্কুলগুলোতে বড়দিনের উপহার বিতরণের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তাজিকিস্তান। সূত্র: দ্য টেলিগ্রাফ,স্কাই নিউজ

/এফইউ/বিএ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।