সকাল ১০:১৭ ; রবিবার ;  ২১ এপ্রিল, ২০১৯  

কুমিল্লায় আ. লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় ৩টি মামলা

প্রকাশিত:

কুমিল্লা প্রতিনিধি।।

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ও একই দলের বিদ্রোহী প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় ৩টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে চৌদ্দগ্রাম থানার এসআই শঙ্কর তালুকদার বাদি হয়ে ২৬ জনের নাম উল্লেখসহ আরও দেড় শত জনকে আসামি করে একটি মামলাটি করেন। এছাড়া, আরও দুটি মামলা  দায়ের করেন স্থানীয় আলকরা ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা ইসমাঈল হোসেন বাচ্চু এবং কাউন্সিলর প্রার্থী আবদুল হালিম।

এই ৩টি মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে চৌদ্দগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ও উপজেলা যুবলীগের সদস্য ইমাম হোসেন পাটোয়ারীকে। পুলিশের কাজে বাধা, গাড়ি-দোকানে অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরের অভিযোগে মামলাগুলো করা হয়।

এ ঘটনায় সোমবার রাতে পৌর এলাকার সান্দিসকরা গ্রামে অভিযান চালিয়ে ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, তুষার পাটোয়ারী, কামাল পাটোয়ারী, সাহাব উদ্দিন পাটোয়ারী, শাখাওয়াত হোসেন পাটোয়ারী ও খোরশেদ আলম।

চৌদ্দগ্রাম থানার ওসি মো. ফরহাদ হোসেন বলেন, এ মামলায় ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলার অন্য আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

উল্লেখ্য, সোমবার বিকেলে চৌদ্দগ্রাম বাজারে নির্বাচনি প্রচারণার সময় আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী মিজানুর রহমান এবং আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা যুবলীগের সদস্য ইমাম হোসেন পাটোয়ারীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ সময় দুই পক্ষের প্রায় চার শতাধিক কর্মী-সমর্থকের মধ্যে কয়েক দফা সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ ছিল। এছাড়া, সংঘর্ষের সময় ২টি মাইক্রোবাস, ৫টি মোটরসাইকেলসহ আশপাশের অন্তত ৩০টি দোকানে আগুন দেন উভয়পক্ষের কর্মী-সমর্থকরা।

/জেবি/এমএনএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।