ভোর ০৭:৩৮ ; বৃহস্পতিবার ;  ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮  

স্পেনে সরকার গঠনের ‘দায়িত্ব’ নিতে চান বর্তমান প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:

বিদেশ ডেস্ক।।

স্পেনের প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানা রাজয় বলেছেন, একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পেলেও সরকার গঠনের চেষ্টা করা তার দলের ‘দায়িত্ব’। স্পেনের নির্বাচনে তার দল পপুলার পার্টি সর্বোচ্চ আসনে বিজয়ী হলেও একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি। ফলে কোয়ালিশন গঠনের চেষ্টা করবে এই রক্ষণশীল দলটি।

উল্লেখ্য, গত তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে পপুলার পার্টি ও সোশ্যালিস্ট পার্টি পালাক্রমে স্পেনের সরকার পরিচালনা করে আসছে। তবে এবারের নির্বাচনী ফলাফল বলছে, ক্ষমতাকেন্দ্রে দুই-দলের আধিপত্যের দিন শেষ করে সে দেশে নতুন রাজনৈতিক শক্তি মাথাচাড়া দিয়েছে৷ ভোটাররা বাম ও উদারপন্থিদেরই দিকেই ঝুঁকেছেন এবারের নির্বাচনে৷ এই প্রথম রক্ষণশীল ও সমাজতান্ত্রিক দুই বড় দল প্রয়োজনীয় সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে পারেনি৷

ক্ষমতাসীন রক্ষণশীল পপুলার পার্টি সবচেয়ে বেশি ভোট পেলেও প্রয়োজনীয় আসনসংখ্যা থেকে অনেক দূরে রয়ে গেছে৷ নির্বাচনে পিপলস পার্টি ১২৩টি আসন পেয়েছে। বিপরীতে সোশ্যালিস্ট পার্টি পেয়েছে ৯০টি আসন। এবারের নির্বাচনে উত্থান হয়েছে নতুন দুই রাজনৈতিক দলের৷ বামপন্থি ‘পোদেমোস' পার্টি ৬৯টি আসন এবং উদারপন্থী সিউদাদানোস বা সিটিজেন পার্টি ৪০টি আসন পেয়েছে। তবে পপুলার পার্টির নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানো রাজয় বলেছেন, ‘আমি সরকার গঠনের চেষ্টা করব, একটি স্থিতিশীল সরকার।’

বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, নির্বাচনের এই ফলাফল নতুন সরকার গঠনের পক্ষে অত্যন্ত কঠিন হয়ে উঠতে পারে৷ স্পেনের রাজনীতি জগতে কোনো পক্ষেরই এখনো জোট সরকারের কোনো অভিজ্ঞতা নেই৷ ফলে নতুন করে নির্বাচনের সম্ভাবনাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না৷ সূত্র: বিবিসি, ডয়চে ভেলে

/বিএ/

/আপ: আরএ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।