রাত ০৪:৩৯ ; সোমবার ;  ১৭ জুন, ২০১৯  

পাবনায় বাস-ট্রাক সংঘর্ষে ৪ জন নিহত

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

পাবনা প্রতিনিধি।।

ঢাকা-পাবনা মহাসড়কের চিনাখরা এলাকায় বাস ও মালবাহী ট্রাকের সংঘর্ষে চারজন নিহত ও অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে দুইজন পুরুষ ও দুইজন নারী রয়েছেন।

নিহতরা হলেন, পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার লক্ষীপুর হিন্দুপাড়ার গোপাল চন্দ্র সরকারের স্ত্রী  শ্রীমতি শংকর রানী (৫০), গোপাল চন্দ্র সরকারের মেয়ে শ্রীমতি বিজলী রানী (৩৫), ঠাকুরগার রানীশংকর গ্রামের মানিক সরকারের ছেলে আকাশ কুমার (১০) ও পাবনা সদর থানার চর মুর্শিদপুর গ্রামের কোরবান আলীর ছেলে ফরিদ হোসেন (৪০)।

সুজানগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাকিল উদ্দিন জানান, সোমবার দুপুর ১টার দিকে দুর্ঘটনাটি ঘটে। পাবনা থেকে ঢাকাগামী নাইট স্টার পরিবহনের একটি বাসের সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে ঘটনাস্থলেই চারজন মারা যান।আহত হন অন্তত ১০ জন। তাৎক্ষনিক স্থানীয়দের সহায়তায় ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের  লোকজন ও পুলিশ তাদের উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করে। আহতদের মধ্যে দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলেও পুলিশ জানায়।

প্রত্যক্ষদর্শী আফজাল হোসেন জানান, চিনাখরা বাজারে ঢুকতেই একটি মোড়ে খড়ের স্তুপের কারণে বিপরীত দিকে থেকে আসা গাড়ি দুটি একে অপরকে দেখতে পায়নি। এ কারণেই এ দুর্ঘটনা ঘটে। এদিকে দুর্ঘটনার পর তাৎক্ষনিকভাবে রাস্তার দুই পাশে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে যান চলাচল স্বাভাবিক করে।

পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার লিটন কুমার দাস ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে খরের স্তুপ তাৎক্ষনিকভাবে সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দেয়। তবে তিনি জানিয়েছেন, এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হবে।  চালক, হেলপারদের আটক করতে না পারলেও বাস ও ট্রাক আটক করেছে পুলিশ।

/জেবি/এফএস/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।