সকাল ১০:৫৮ ; রবিবার ;  ২১ এপ্রিল, ২০১৯  

‘বিদ্রোহের বিচারের মাধ্যমে বিজিবি কলঙ্কমুক্ত হয়েছে’

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

বিজিবিকে শক্তিশালী, চৌকস, আধুনিক ও যুগোপযোগী সীমান্তরক্ষী বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলার দৃঢ় অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রবিবার (২০ ডিসেম্বর) বিজিবি দিবস উপলক্ষে সংস্থাটির সদর দফতরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন। 

বিজিবি যেন ভবিষ্যতে ‘বিডিআর বিদ্রোহের’ মতো আত্মঘাতী সংঘাতে জড়িয়ে না পড়ে, সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী। পিলখানার বীর উত্তম আনোয়ার হোসেন প্যারেড গ্রাউন্ডে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ২০০৯ সালে সরকার গঠনের পরপরই  ‘বিডিআর বিদ্রোহ’-র মতো ন্যাক্কারজনক ও অস্থিতিশীল পরিস্থিতি আমাদের মোকাবেলা করতে হয়েছে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় সেদিন ওই সঙ্কটময় পরিস্থিতি আমরা কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হয়েছিলাম।

বিডিআর বিদ্রোহের বিচার প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ওই ঘটনায় সম্পৃক্ত উচ্ছৃঙ্খল ও বিপথগামী বিডিআর সদস্যদের আইনের আওতায় এনে বিচারের মাধ্যমে এই বাহিনীকে কলঙ্কমুক্ত করা হয়েছে। বিদ্রোহের সঙ্গে যারা সম্পৃক্ত ছিল না, তারা চাকরিতে বহাল রয়েছেন। তাদের কঠোর পরিশ্রমে বাহিনীর সুনাম ও মর্যাদা পুনঃপ্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন, বিজিবির এই অগ্রযাত্রা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে।

বক্তব্যের পর প্রধানমন্ত্রী প্যারেড গ্রাউন্ডে বিজিবি আয়োজিত নান্দনিক কুচকাওয়াজ পরিদর্শন করেন।

 

/এইচকে/টিএন/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।