রাত ০৯:৫৬ ; মঙ্গলবার ;  ১৮ জুন, ২০১৯  

সাত দিনেও খোঁজ মেলেনি ‘সোনা চোর’ এএসআই রফিকের

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

আটক করা ৫০ লাখ টাকা মূল্যের সোনার বার নিয়ে পালিয়ে যাওয়া বেনাপোল পোর্ট থানার এএসআই রফিককে সাত দিনেও খুঁজে বের করতে পারেনি পুলিশ।গত ১৩ ডিসেম্বর (রবিবার) চোরাচালানিদের হাত থেকে উদ্ধার করা সোয়া কেজিরও বেশি সোনা থানা হেফাজতে জমা না দিয়ে তা আত্মসাৎ করে পালিয়ে যান তিনি।

শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) বেনাপোল বন্দর থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামিম আহমেদ জানান, পুলিশের হাতে আটক চোরাচালানের আসামি রেজাউলের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী সোনার বারসহ সাত দিন ধরে (১৩ ডিসেম্বর থেকে) পলাতক রয়েছেন এএসআই রফিক। পলাতক এএসআইকে খুঁজে বের করার সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

ওসি শামিম আহমেদ নিখোঁজ এএসআই রফিকের পালিয়ে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর তার বিরুদ্ধে বন্দর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ সূত্র জানায়, রফিকের কাছে থাকা প্রায় ১৩০০ গ্রাম স্বর্ণের বাজারমূল্য ৫০ লাখ টাকারও বেশি। স্বর্ণগুলো হয়ত ‘বার’ নয়তো ‘রোল’ আকারে আছে। অনুমান করা হচ্ছে, বার গলিয়ে খাদ মিশিয়ে আরও বেশি ভরের রোল তৈরি করে ভারতে পাচারের চেষ্টা চলছিল।

পুলিশ সূত্রমতে, বেনাপোল বন্দর থানায় এর আগেও স্বর্ণ চোরাচালানে পুলিশের জড়িত হয়ে পড়ার আলামত পাওয়া গেছে। বন্দর থানার সাবেক দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাইয়ুম আলী সর্দারের বিরুদ্ধে ইতোপূর্বে স্বর্ণ চোরাচালানে সহায়তার অভিযোগ উঠেছিল। পরে তাকে শাস্তিমূলক বদলি করা হয়।

/এইচকে/টিএন/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।