রাত ১০:৩০ ; সোমবার ;  ২২ অক্টোবর, ২০১৮  

নারায়ণগঞ্জে শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষ: ২ জন গুলিবিদ্ধসহ আহত ১৫

প্রকাশিত:

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি।।

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার পঞ্চবটিতে পুলিশের সঙ্গে শ্রমিকদের ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া ও সংঘর্ষে দুইজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত ১৫ জন। আহতদের মধ্যে দুই পুলিশ সদস্যও রয়েছেন।

সোমবার দুপুর ১২টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ওই সংঘর্ষের ঘটনায় ঢাকা-পাগলা-নারায়ণগঞ্জ ও ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ-মুন্সীগঞ্জ সড়কে যান চলাচল বন্ধ ছিল।

জানা গেছে,বেলা সাড়ে ১১টায় ফতুল্লার পুলিশ লাইন এলাকা থেকে একটি ব্যাটারিচালিত অটোরিকশায় চড়ে পঞ্চবটি যাচ্ছিলেন পঞ্চবটি ট্রাকস্ট্যান্ডের জেলা ট্রাক, ট্যাংক-লরি ও কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সদস্য আমিনুল ইসলাম ও পুলিশ কনস্টেবল মো. আজাদ। অটোরিকশায় বসা নিয়ে দুজনের মধ্যে বাকবিতণ্ডা ঘটে। পরে আমিনুলকে মারধর করেন আজাদ।

এই খবর পঞ্চবটি এলাকায় পৌঁছালে ট্রাকস্ট্যান্ডের শ্রমিকরা সেখানে অবস্থান নেয়। অটোরিকশাটি সেখানে পৌঁছালে স্ট্যান্ডের লোকজন আজাদকে মারধর করে। আজাদকে মরধরের ঘটনার পর সেখানে পুলিশ আসে। এর পরই শুরু হয় দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়া। এসময় স্ট্যান্ড শ্রমিকেরা লাঠিসোটা নিয়ে পুলিশের ওপর হামলা চালালে শুরু হয় সংঘর্ষ।

প্রায় আধ ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে পুলিশ বেশ কয়েক রাউন্ড শটগানের গুলি ছোড়ে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সংঘর্ষে ফতুল্লা মডেল থানার সেকেন্ড অফিসার এস আই গোলাম মোস্তফা,এস আই কাদির,কনস্টেবল আজাদ আহত হন। অন্যদিকে পুলিশের লাঠিচার্জ ও গুলিতে আবদুর রহিম ও ফারুক হোসেন নামে দুই শ্রমিক গুলিবিদ্ধ হয়ে ১০০ শয্যা বিশিষ্ট নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। এছাড়া সংঘর্ষে আলামিন, জাকির, এনায়েত, হাসানসহ মোট ১৫ জন আহত হয়েছেন। তাদের বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ফতুল্লা মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবদুর রাজ্জাক জানান,তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুলিশ সদস্যের সঙ্গে ট্রাকস্ট্যান্ডের এক শ্রমিক নেতার বাকবিতণ্ডা ও পরে হাতাহাতি হয়। ওই ঘটনায় শ্রমিকরা পুলিশ সদস্যকে মারধর করে। এসময় পুলিশ বাধা দিতে গেলে সংঘর্ষের সূত্রপাত ঘটে। পুলিশ পরে লাঠিচার্জ ও কয়েক রাউন্ড গুলি করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

/জেবি/এফএস/

 

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।