দুপুর ০২:১৫ ; মঙ্গলবার ;  ১২ নভেম্বর, ২০১৯  

‘নিয়মিত ওষুধ খেলেই যক্ষ্মা নিরাময় হয়’

প্রকাশিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

একমাত্র চুল ও নখ ছাড়া শরীরের যেকোনও জায়গায় যক্ষ্মা হতে পারে এবং নিয়মিত ওষুধ খাওয়াই যক্ষ্মা রোগ নিরাময়ে অন্যতম উপায় বলে মন্তব্য করেছেন বক্তারা। আজ মহাখালীর ব্র্যাক ইন সেন্টারে ওষুধ প্রতিরোধী যক্ষ্মা মোকাবেলায় ডিওটি ( DOT- Directly Observed Treatment) এর ভূমিকা শীর্ষক গোলটেবিল অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তারা।

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মো. নাসিম বলেন, যক্ষ্মাকে পুরাতন রোগ হিসেবে জানি। একটা সময় ছিল, যখন যক্ষ্মা রোগ হলে মৃত্যু অবধারিত ছিল। আজ চিকিৎসাবিজ্ঞান এগিয়ে গেছে। যার কারণে যক্ষ্মাকে আমরা অনেকখানি পরাজিত করতে পেরেছি। যক্ষ্মা নিয়ে প্রতিবছর জরিপ করা হলে দেখা যাবে প্রতিবছর এই সংখ্যা অনেক কমে গেছে। সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে প্রত্যেকের নিজের অবস্থান থেকে যক্ষ্মা প্রতিরোধে ভূমিকা রাখতে হবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ পোলিও মুক্ত হয়েছে, প্রায় ম্যালেরিয়া মুক্ত হয়েছে, ভবিষ্যতে বাংলাদেশ যক্ষ্মা মুক্তও হবে। এগুলো সব হয়েছে সম্মিলিত প্রচেষ্টায়। তাই যক্ষ্মা মোকাবিলাতেও সবার সহযোগিতা দরকার। জেলা পর্যায়ের হাসপাতালগুলোতে আইসিইউ, সিসিইউর ব্যবস্থা করা হবে বলেও তিনি জানান।

গোলটেবিলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের জাতীয় যক্ষ্মা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির পরিচালক ডা. মো. মোজ্জাম্মেল হক বলেন, যক্ষ্মা রোগীর সংখ্যার দিক থেকে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান সপ্তম। প্রতিবছর এক লাখ মানুষের মধ্যে ২২৭ জন নতুন করে যক্ষ্মা রোগে আক্রান্ত হয়। একজন যক্ষ্মা রোগীর এক বছর যদি চিকিৎসা না করা হয়, তাহলে তার থেকে এই রোগ আরও ১০ জনের মধ্যে সংক্রমিত হতে পারে।

ব্র্যাক-এর যক্ষ্মা, ম্যালেরিয়া কন্ট্রোল প্রোগ্রামের পরিচালক ডা. আকরামুল ইসলাম বলেন, যক্ষ্মা নির্ণয়ের জন্য ডিজিটাল এক্সরে মেশিন গুরুত্বপূর্ণ। তাই দেশের প্রতিটি উপজেলায় ডিজিটাল এক্সরে মেশিন থাকলে যক্ষ্মা নির্ণয় তড়ান্বিত হবে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, যক্ষ্মা শনাক্তকরণ একটি বড় সমস্যা। এসব ক্ষেত্রে অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতির প্রয়োজন আছে এটি ঠিক। কিন্তু এসব যন্ত্রপাতি চালানোর মতো দক্ষ জনবলের অভাব রয়েছে দেশে। তবে সরকার সামর্থ্য অনুযায়ী ব্যবস্থা নিচ্ছে।

স্বাস্থ্য অধিদফর, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, দৈনিক ইত্তেফাক ও ব্র্যাকের আয়োজনে এ গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

/জেএ/এএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।