সন্ধ্যা ০৭:০৫ ; রবিবার ;  ২৪ মার্চ, ২০১৯  

এলডিসিভুক্ত দেশ সমূহের সমন্বয়ক বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বাংলা ট্র্রিবিউন রিপোর্ট।।

আগামী ১৫-১৮ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার মন্ত্রী পর্যায়ের সম্মেলনে (এমসি-১০) যোগদান করতে শুক্রবার (১১ ডিসেম্বর) রাতে কেনিয়ার রাজধানী নাইরোবি যাচ্ছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। তিনি ২১ সদস্যের অফিসিয়াল ও ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন।

সম্মেলনে স্বল্প উন্নত (এলডিসি) দেশসমূহের জন্য শুল্ক ও কোটা মুক্ত সুবিধা নিশ্চিতকরণ, সার্ভিস ওয়েভার, রুলস অব অরিজিন, ভ্যেলু এডিশন সুবিধা প্রদানের ক্ষেত্রে দাবি আদায়ের জন্য প্রচেষ্টা চালানো হবে। উন্নত বিশ্বে ঔষধ রফতানির ক্ষেত্রে শর্ত ইতিমধ্যে শিথিলের চুক্তির মেয়াদ ১৭ বছর বৃদ্ধি করা হয়েছে। আগামী ৩১ ডিসেম্বর এর মেয়াদ শেষ হবার কথা ছিল। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশ কিভাবে সর্বোচ্চ সুবিধা পেতে পারে, সেজন্য চেষ্টা চালানো হবে।

বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থায় বাংলাদেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে চলছে। চলতি ২০১৫ সালে চতুর্থবারের মতো বাংলাদেশ এলডিসিভুক্ত দেশগুলোর সমন্বয়কের দায়িত্ব দক্ষতা ও সফলতার সঙ্গে পালন করছে।

বাংলাদেশের প্রচেষ্টায় উন্নত বিশ্বে শুল্ক ও কোটামুক্ত সুবিধা আদায় করা হয়েছে। যদিও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ এখনও কিছু উন্নত দেশ এ সুবিধা দিচ্ছে না। এবারের সম্মেলনে তা জোরালোভাবে তুলে ধরা হবে। এলডিসিভুক্ত দেশগুলোর দাবি আদায়ের জন্য বাংলাদেশ দক্ষতা ও সফলতার সঙ্গে কাজ করছে।

সম্মেলনে যোগদানের প্রতিনিধি দলে অন্যান্যের মধ্যে রয়েছেন, বাণিজ্য মন্ত্রনালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন, এনবিআরের চেয়ারম্যান নজিবুর রহমান, বাণিজ্য মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব অমিতাভ চক্রর্তী, ইপিবির ভাইস চেয়ারম্যান শুভাশীষ বসু, বিজিএমই’র প্রেসিডেন্ট সিদ্দিকুর রহমান, বিকেএমই’র সহসভাপতি এ এইচ আসলাম সানি, এমসিসি’র প্রেসিডেন্ট সৈয়দ নাসিম মঞ্জুর, ডিসিসিআই’র আসিফ ইব্রাহিম।

/এসআই/এফএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।