দুপুর ০২:২৮ ; বৃহস্পতিবার ;  ১৫ নভেম্বর, ২০১৮  

নভেম্বরে সবপণ্যে মূল্যস্ফীতি কমেছে

প্রকাশিত:

সম্পাদিত:

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট।।

নভেম্বর মাসে দেশে খাদ্য ও খাদ্যবহির্ভুত পণ্যসহ সার্বিক মূল্যস্ফীতি কমেছে। এ সময় সার্বিক মূল্যস্ফীতি পয়েন্ট টু পয়েন্ট ভিত্তিতে অক্টোবর মাসের তুলনায় কমেছে দশমিক ১৪ শতাংশ।

বুধবার শেরে বাংলা নগরে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (এনইসি) সম্মেলন কক্ষে এ তথ্য জানান পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। 

তিনি বলেন, চাল, ডাল, ভোজ্যতেল, মসলাসহ শীতকালীন সবজি বাজারে আসায় নভেম্বর মাসে আগের মাসের তুলনায় খাদ্য উপখাতে মূল্যস্ফীতি কমেছে। পাশাপাশি খাদ্যবহির্ভুত উপখাতেও মূল্যস্ফীতি কমেছে। এর ফলে সার্বিক মূল্যস্ফীতিও কমেছে। 

জাতীয় পরিসংখ্যান ব্যুরো’র তৈরি এ মূল্যস্ফীতি প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, অক্টোবরের ৬ দশমিক ১৯ শতাংশ থেকে নেমে দেশের সার্বিক মূল্যস্ফীতি  ৬ দশমিক ০৫ শতাংশে দাঁড়িয়েছে।

আগের মাসের ৫ দশমিক ৮৯ শতাংশ থেকে কমে নভেম্বরে খাদ্যপণ্যের মূল্যস্ফীতি দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ৭২ শতাংশে। নভেম্বরে খাদ্যবহির্ভূত পণ্যের মূল্যস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে ৬ দশমিক ৫৬ শতাংশে। অক্টোবরে এটি ছিল ৬ দশমিক ৬৭ শতাংশ।

গ্রাম অঞ্চলের সার্বিক মূল্যস্ফীতি পয়েন্ট টু পয়েন্ট ভিত্তিতে নভেম্বরে কমে দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ৬১ শতাংশে।অক্টোবরে এটি ছিল ৫ দশমিক ৮২ শতাংশ। অক্টোবরের ৫ দশমিক ২৩ শতাংশ থেকে নভেম্বরে খাদ্যপণ্যের মূল্যস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে ৫ শতাংশে। খাদ্যবহির্ভূত পণ্যের মূল্যস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে ৬ দশমিক ৭৬ শতাংশে।অক্টোবরে এটি ছিল ৬ দশমিক ৯০ শতাংশ।

শহরে অঞ্চলের সার্বিক মূল্যস্ফীতি পয়েন্ট টু পয়েন্ট ভিত্তিতে নভেম্বরে কমে দাঁড়িয়েছে ৬ দশমিক ৮৮ শতাংশে। অক্টোবরে এটি ছিল ৬ দশমিক ৯১ শতাংশ। অক্টোবরের ৭ দশমিক ৪৪ শতাংশ থেকে নভেম্বরে খাদ্যপণ্যের মূল্যস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে ৭ দশমিক ৪২ শতাংশে। খাদ্যবহির্ভূত পণ্যের মূল্যস্ফীতি কমে দাঁড়িয়েছে ৬ দশমিক ২৯ শতাংশে। অক্টোবরে এটি ছিল ৬ দশমিক ৩৩ শতাংশ।

/এফএইচ/

***বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত কোনও সংবাদ, কলাম, তথ্য, ছবি, কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার দণ্ডনীয় অপরাধ। অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে কর্তৃপক্ষ আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।